• NEWS PORTAL

  • শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২ | ৪ ভাদ্র ১৪২৯

নির্জন রাতে হাঁক ডাক গ্রামবাসীর  

মনোজসাহা, গোপালগঞ্জ

প্রকাশিত: ১৭:১৩, ৬ আগস্ট ২০২২

ফন্ট সাইজ
নির্জন রাতে হাঁক ডাক গ্রামবাসীর  

‘হুঁশিয়ার সাবধান, জাগো জাগো গ্রামবাসী জাগো’ এমন হাঁক ডাক দিয়ে রাতে পাহারা দিচ্ছেন গ্রামবাসী। শুক্রবার (৫ আগস্ট) রাত সাড়ে ১০ টার দিকে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার রাতইল ইউনিয়নের শ্যামবাজার এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে এমন দৃশ্য। চুরি, ডাকাতি ও মাদক পাচার প্রতিরোধ এবং এলাকাকে নিরাপদ রাখতে পুলিশ ও গ্রাম পুলিশের পাশাপাশি সম্মিলিতভাবে রাত জেগে পাহারা দিচ্ছেন গ্রামবাসী। 

সম্প্রতি চুরি-ডাকাতির উপদ্রব বেড়ে যাওয়ায় উপজেলার প্রতিটি এলাকার গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে এমন পাহারার ব্যবস্থা করা হয়েছে। রাত ১০ টার পর থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত দল বেঁধে পাহারা দিচ্ছেন গ্রামবাসী।

কাশিয়ানী উপজেলার জয়নগর এলাকায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে-বাঁশের লম্বা লাঠি, বাঁশি ও টর্চ লাইট নিয়ে দলবদ্ধ হয়ে পাহারা দিচ্ছেন গ্রামবাসী। সন্দেহ ভাজন ককাউকে দেখা গেলে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। গ্রামবাসী এভাবে রাতে বাজার পাহারা দেওয়ায় কোন চুরি-ডাকাতি সংঘটিত হচ্ছে না। অবৈধ কোন কিছু বাজারে প্রবেশের সুযোগও পাচ্ছেনা। এভাবে প্রত্যেকটি গ্রামের মানুষ সজাগ থাকলে চুরি-ডাকাতিসহ নানা অপরাধ মূলক কর্মকান্ড বন্ধ হয়ে যাবে মনে করছেন স্থানীয়রা।

উপজেলার শ্যাম বাজারের ইলেকট্রনিক্স ব্যবসায়ী মো.শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘বাজারে গ্রামবাসী পাহারা দেওয়ায় এখন আর চুরি-ডাকাতি হয় না। আমরা ব্যবসায়ীরা রাতে দোকান পাট বন্ধ করে অনেকটা নিরাপদ ও নিশ্চিন্তে থাকি।’

কাশিয়ানী সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মাদ আলী খোকন বলেন, এলাকাবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে হাট-বাজার, পাড়া-মহল্লার প্রবেশ দ্বারসহ গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন পয়েন্টে পাহারা বসানো হয়েছে। তাদের সঙ্গে পুলিশ ও গ্রাম পুলিশ কাজ করছেন। এভাবে সজাগ থাকলে শুধু চুরি ডাকাতি নয়, মাদক পাচার ও বন্ধ হয়ে যাবে বলে মনে করছেন তিনি।

কাশিয়ানী থানার ওসি মো.সওগাতুল আলম বলেন, চুরি-ডাকাতি ও মাদক পাচার প্রতিরোধে জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশনায় প্রতিটি ইউনিয়নে স্থানীয় জন প্রতিনিধি ও গ্রামবাসীর সমন্বয়ে বৈঠক করে কমিটি গঠন করা হয়েছে। প্রতিটি এলাকায় রাত জেগে পাহারা দিচ্ছেন তারা। গ্রামবাসীর স্বতস্ফূর্ত অংশ গ্রহণে রাতের বেলায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার কাজ অনেক সহজ হয়েছে। এভাবে প্রত্যেকটি গ্রামের মানুষ সজাগ থাকলে চুরি-ডাকাতি বন্ধ অনেকটা সহজ হবে। কমে আসছে অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন তিনি।

বিভি/রিসি

মন্তব্য করুন: