• মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১ | ১৬ অগ্রাহায়ণ ১৪২৮

BVNEWS24 || বিভিনিউজ২৪

পঞ্চাশোর্ধ গৃহবধূকে ধর্ষণের পর ছুরিকাঘাতে জখম 

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৭:০২, ২৫ নভেম্বর ২০২১

ফন্ট সাইজ
পঞ্চাশোর্ধ গৃহবধূকে ধর্ষণের পর ছুরিকাঘাতে জখম 

সাতক্ষীরার সদর উপজেলার লাবসা ইউনিয়নে স্বামী পরিত্যক্তা পঞ্চাশোর্ধ এক গৃহবধূকে ধর্ষণের পর ছুরি দিয়ে জখম করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) ভোর রাতে লাবসা ইউনিয়নের মাগুরায় এই ঘটনা ঘটে। 

আহত অবস্থায় নির্যাতিতা গৃহবধূ বর্তমানে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।  

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন স্বামী পরিত্যক্তা ওই গৃহবধূ জানান, কেউ না থাকার সুযোগে বৃহস্পতিবার ভোর রাতে তিন জনের একদল দূর্বৃত্ত তাঁর বাড়িতে ঢোকে। এ সময় তার ঘরে ঢুকে গলায় ছুরি ও মুখের উপর কম্বল চেপে ধরে এবং পিঠমোড়া দিয়ে হাত বেধে এক দূর্বৃত্ত তাঁকে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। অন্য দু’জন এ সময় বাহিরে পাহারা দিতে থাকে। এ সময় তিনি ধস্তাধস্তির চেষ্টা করলে তাঁর দুই হাতে ও গলায় ছুরি দিয়ে আঘাত করে ওই দূর্বৃত্ত। নির্যাতনের শিকার স্বামী পরিত্যক্তা ওই গৃহবধূ তাঁর সংগে অমানবিক কাজের জন্য জড়িতদের শাস্তি দাবি করেন।

ধর্ষিতার মেয়ে অভিযোগ করে বলেন, আমার মায়ের সংগে যে অমানবিক ও পাশবিক নির্যাতন চালানো হয়েছে তা অন্য কোনো নারীর সংগে যাতে এই ধরনের ঘটনা না ঘটে সেই জন্য তিনি সরকারের কাছে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। দূর্বৃত্তরা এ সময় তাঁর মায়ের কানের দুল ও পায়ের নুপুর ছিনিয়ে নিয়ে যায়। 

স্থানীয় ইউপি সদস্য নজিবুর রহমান টুটুল এই অমানবিক কাজের নিন্দা জানিয়ে এই ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে বিচার দাবি করেন। 

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. শেখ ফয়সাল আহমেদ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বর্তমানে সদর হাসপাতালের গাইনী বিভাগে ওই গৃহবধূ চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তিনি আরও জানান, তাঁকে চিকিসা দেওয়ার পাশাপাশি আমরা মনসিকভাবে সার্পোটও দিচ্ছি। বর্তমানে তিনি অনেকটা সুস্থ্য রয়েছেন।

সাতক্ষীরা সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বাবুল আক্তার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জানান, এই ঘটনায় থানায় এখনও পর্যন্ত কেউ কোনো অভিযোগ দেননি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে, এই ঘটনায় অভিযোগ দায়েরের প্রস্ততি চলছে বলেও তিনি জানান।

বিভি/এজে/এএন

মন্তব্য করুন: