• NEWS PORTAL

  • বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

সগৌরবে দাঁড়িয়ে থাকার দশম বছরে কুবিসাস

মুরাদুল মুস্তাকীম মুরাদ, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় 

প্রকাশিত: ১২:৩২, ৬ ডিসেম্বর ২০২২

ফন্ট সাইজ
সগৌরবে দাঁড়িয়ে থাকার দশম বছরে কুবিসাস

সাংবাদিকতাকে ধরা হয় মুক্ত পেশা বলে। বলা হয়ে থাকে একটি রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ হলো সংবাদ মাধ্যম। একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে গণতন্ত্রকে সত্যিই গণমানুষের তন্ত্র হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার দায়িত্ব হচ্ছে সংবাদ মাধ্যমের। জনগণের হয়ে জনগণের পাশে থেকে জনগণের কথা বলাটাই সাংবাদিকতা।

এই সাংবাদিকতার আঁতুড়ঘর হচ্ছে ক্যাম্পাস সাংবাদিকতা। এখান থেকেই অনেকের হয় সাংবাদিকতার হাতেখড়ি। ক্যাম্পাস সাংবাদিকেরা এসময়টাতে শিক্ষানবিশ সাংবাদিক হিসেবে কাজ করতে থাকেন বিভিন্ন টিভি, অনলাইন এবং প্রিন্ট মিডিয়া গুলোতে। সংবাদ সংগ্রহ, নির্বাচন কিংবা লেখায় আনাড়িপনার ছাপ থাকলেও সাংবাদিকতার প্রতি অপরিসীম ভালোবাসা থেকেই এখানে একেকজন নিজেকে গড়ে তোলেন ক্যাম্পাস সাংবাদিক হিসেবে।

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় দেশের নবীন বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর একটি। পাহাড় ঘেরা লাল মাটির বুকে গড়ে ওঠা এই ক্যাম্পাসেও সাংবাদিকতার প্রতি অগাধ ভালোবাসা রেখে পড়াশোনার পাশাপাশি একদল তরুণের নিত্যদিনের পথচলা এই ক্যাম্পাস সাংবাদিকতাকে সাথে নিয়ে। বিশ্ববিদ্যালয়কে বলা হয় সাংবাদিকতা চর্চার উর্বরভূমি। বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকতা মানেই প্রতিনিয়ত সংবাদ লেখা ও সংবাদ শেখার জায়গা। সততা, ন্যায়, বস্তুনিষ্ঠতা, দক্ষতা, সর্বোপরি নিরপেক্ষ সংবাদ পরিবেশনের জন্য ক্যাম্পাস সাংবাদিকরা সংবাদের অক্লান্তকর্মী।

“সত্য ও ন্যায়ের পথে অবিচল” স্লোগানকে বুকে ধারণ করে ২০১৩ সালের ৬ ডিসেম্বর যাত্রা শুরু করে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (কুবিসাস)। হাটি হাটি পা পা করে সফলতার ৯ম বছর শেষে ১০ম বছরে পদার্পণ এখন সংগঠনটির। শুরু থেকে আজ পর্যন্ত এই সংগঠনটির ইতিহাস পুরোদস্তুর ‘আপোষহীনতার ইতিহাস’। এরমধ্যে অনেকবারই এই সংগঠনটির কলমের উপর আঘাত হানা হয়। এর লেখনীকে স্তব্ধ করে দেয়ার চেষ্টা করা হয়। চেষ্টা করা হয় এর অগ্রযাত্রাকে রুখে দেওয়ার। কিন্তু প্রতিবারই এই সংগঠনটি তার পেশাদারিত্ব এবং ন্যায়সংগত অবস্থানকে বজায় রেখে দ্বিগুণ শক্তি নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে থাকে। সকল শত্রুতার জাল চিহ্ন করে মাথা উঁচু করে সগৌরবে দাঁড়িয়ে থাকে ক্যাম্পাসের বটবৃক্ষ হয়ে।

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি ক্যাম্পাস সাংবাদিকদের একটি অনন্য পরিবার। যেখানে কিছু স্বপ্নবাজ তরুণ তাদের বিচক্ষণতা ও সৃজনশীলতা দিয়ে নিরলস কাজের মাধ্যমে ক্যাম্পাসের সকল ভালো-মন্দ দিক তুলে ধরে। সংবাদ চর্চার পাশাপাশি, খেলাধুলা, আনন্দ ভ্রমণের আয়োজন কিংবা দক্ষ ও বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিক তৈরিতে সাংবাদিকতার বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করে। ক্যাম্পাস সাংবাদিকতার আনন্দ ভাগাভাগি কিংবা নানা ধরনের প্রতিকূল অবস্থাকে একসাথে মোকাবিলা করার চ্যালেন্জ নিয়েই এই সংগঠনের নিত্যদিনের পথচলা।

এই ক্যাম্পাস সাংবাদিকদের রয়েছে একটি স্বতন্ত্র লক্ষ্য, একটি স্বপ্ন। সুন্দর শিক্ষাঙ্গন, শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ, নিরাপদ পরিবেষ্টনী গড়ে তোলার জন্য আপ্রাণ কাজ করে যাচ্ছে সাংবাদিক সমিতির প্রতিটি কর্মী।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী নিয়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির প্রতিষ্ঠাকালীন আহ্বায়ক আহসান হাবীব বলেন, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের একেবারে শুরুর দিক থেকে অসত্য ও অন্যায়ের বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করে আসছে কুবিসাস। আমার পরম সৌভাগ্য যে, এই পথচলার প্রথমদিককার সক্রিয় সারথীদের একজন ছিলাম আমি। সাংবাদিকতায় মজবুত ও আপোষহীন অবস্থান গড়তে আমরা যে বীজ বপন করেছিলাম তা আজ সুগভীর মূল ও শক্তিমান কাণ্ডসমৃদ্ধ সুশোভিত বৃক্ষে পরিণত হয়েছে দেখে হৃদয় উদ্বেলিত হয় অসামান্য আনন্দে। যে সুযোগ্য উত্তরসূরীরা কুবিসাসকে এতদূর বয়ে এনেছে, তাদের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা।

সাংবাদিক সমিতির বর্তমান সভাপতি শাহাদাত বিপ্লব বলেন, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি সুপ্রসিদ্ধ সংগঠন। বিশ্ববিদ্যালয়ে গত ৯ বছর ধরে আমরা সত্য ও ন্যায়ের পথে কাজ করে যাচ্ছি। অন্যায় অসঙ্গতির পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক দিক তুলে ধরতে আমরা সদা সোচ্চার। একটি মেলবন্ধন যে একটা শক্তির নাম এই সংগঠন তার জ্বলন্ত উদাহরণ। সর্বোপরি বিশ্ববিদ্যালয় ও সাংবাদিকতার উন্নয়নের জন্য আমরা অতীতেও নিরলস কাজ করেছি, বর্তমানেও করছি, আশা করি তা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে।

বিভি/রিসি

মন্তব্য করুন: