• বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২ | ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

বিশ্বব্যাপী করোনায় মৃত্যু ও সংক্রমণ দুটোই বেড়েছে

প্রকাশিত: ১০:০১, ১৩ মে ২০২২

ফন্ট সাইজ
বিশ্বব্যাপী করোনায় মৃত্যু ও সংক্রমণ দুটোই বেড়েছে

কয়েকদিন ধরে সমগ্র বিশ্বে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা কমতে থাকলেও হঠাৎ আবারও বেড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সারাবিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ হাজার ৯৩৪ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে চার শতাধিক। এতে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৬২ লাখ ৮৪ হাজার ৩৮৪ জনে। 

একই সময়ে বিশ্বে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৫ লাখ ৯২ হাজার ৯৫৪ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় নতুন শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েছে প্রায় ২২ হাজার। এতে মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত ভাইরাসে আক্রান্ত মোট রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৫১ কোটি ৯৬ লাখ ৪৩ হাজার ২৮২ জনে।

শুক্রবার (১৩ মে) সকালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

ওয়ার্ল্ডোমিটারস বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছে জার্মানির মানুষ। এ সময়ে দেশটিতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৮২ হাজার ৬৫২ জন এবং মারা গেছেন ১৭৯ জন। করোনা মহামারির শুরু থেকে ইউরোপের এ দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২ কোটি ৫৬ লাখ ৬৫ হাজার ৯১০ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১ লাখ ৩৭ হাজার ৬২৮ জন মারা গেছেন।

অন্যদিকে, দৈনিক প্রাণহানির তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে যুক্তরাজ্য। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২৮৪ জন এবং নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ হাজার ৪৫৮ জন। করোনা মহামারির শুরু থেকে দেশটিতে এখন পর্যন্ত ২ কোটি ২১ লাখ ৫৯ হাজার ৬১৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১ লাখ ৭৬ হাজার ৭০৮ জন মারা গেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৮১ হাজার ৯০০ জন এবং মারা গেছেন ২০৭ জন। করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এ দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৮ কোটি ৪০ লাখ ৫৪ হাজার ৬৩৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১০ লাখ ২৬ হাজার ৯৪ জন মারা গেছেন।

ফ্রান্সে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৬ হাজার ৪৭ জন এবং মারা গেছেন ৮৪ জন।  এসময়ে দক্ষিণ আফ্রিকায় নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৮ হাজার ৯২০ জন এবং মারা গেছেন ২১ জন।

রাশিয়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১১১ জন এবং নতুন করে ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন ৪ হাজার ৬৫ জন। এসময়ে থাইল্যান্ডে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৮ হাজার ১৯ জন এবং মারা গেছেন ৫৯ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় দক্ষিণ কোরিয়ায় নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৫ হাজার ৮৮৩ জন এবং মারা গেছেন ৬৩ জন।  একইসময়ে জাপানে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৫ হাজার ৭৪০ জন এবং মারা গেছেন ৪১ জন। 

গত একদিনে ফিনল্যান্ডে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৬ হাজার ৯৭৩ জন এবং মারা গেছেন ১৩৪ জন। ইতালিতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৯ হাজার ৩১৭ জন এবং মারা গেছেন ১৩০ জন। 

লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে ত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১৩৬ জন এবং নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ২১ হাজার ৩৪৪ জন।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের নভেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এরপর ২০২০ সালের ১১ মার্চ করোনাকে ‘বৈশ্বিক মহামারি’ হিসেবে ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। সমগ্র বিশ্বজুড়ে সৃষ্টি হয় অচলাবস্থা।

বিভি/এজেড

মন্তব্য করুন: