• NEWS PORTAL

  • সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২

ই-টিকিটিং: আর থাকছে না বাড়তি ভাড়ার ঝামেলা

প্রকাশিত: ১৮:২৪, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

আপডেট: ১৮:৩৬, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

ফন্ট সাইজ
ই-টিকিটিং: আর থাকছে না বাড়তি ভাড়ার ঝামেলা

রাজধানীতে গণপরিবহনে চালু হয়েছে ই-টিকিটিং ব্যবস্থা। এতে চার্ট অনুযায়ী আদায় করা হচ্ছে ভাড়া। আর থাকছে না বাড়তি ভাড়ার ঝামেলা। অতিরিক্ত ভাড়া থেকে বেঁচে যাবে যাত্রীরা।

গণপরিবহনে ভাড়া নিয়ে নৈরাজ্য দীর্ঘদিনের। সরকার নির্ধারিত ভাড়া মানতো না কোনো গণপরিবহন। আর এ বিষয়ে যাত্রীদের অভিযোগেরও শেষ ছিল না।

তবে এবার যাত্রীদের জন্য সুখবর নিয়ে এলো পরিবহন সংশ্লিষ্টরা। রাজধানীতে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় বন্ধে বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) থেকে চালু হয়েছে ই-টিকিটিং ব্যবস্থা। কয়েকটি রুটে মিরপুর সুপার লিংক, পরিস্থান, প্রজাপতি ও বসুমতিসহ বেশ কয়েকটি বাস পরীক্ষামূলকভাবে শুরু করেছে এ কার্যক্রম।

এ ব্যবস্থা পুরোপুরি কার্যকর হলে সাধারণ যাত্রীদের গুনতে হবে না অতিরিক্ত ভাড়া। তাই নতুন এ সিস্টেমকে স্বাগত জানিয়েছেন যাত্রীরা।

টিকিট বিক্রেতারা বলছেন, ই- টিকিটিং চালু হওয়ায় যাত্রী হয়রানি কমার পাশাপাশি ভাড়ারও সমন্বয় করা হচ্ছে।

জনসাধারণের সুবিধার্থে পর্যায়ক্রমে সব রুট ও বাসেই ই-টিকিটিং চালুর দাবি জানান যাত্রীরা।

এর আগে গত ৩১ আগস্ট বনানীতে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার এনায়েতুল্লাহ বলেছিলেন, নগরীর পাঁচটি রুটে ই-টিকিটিং পরীক্ষা করে শিগগিরই তা পুরো ঢাকায় চালু করা হবে।

তিনি বলেছিলেন, কাউন্টারে একটি পজ মেশিন থাকবে, এর মাধ্যমে যাত্রীরা টিকিট কেটে গাড়িতে উঠবেন। যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া যাতে আদায় না হয়, সেজন্য আমরা এ সিস্টেমে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

এজন্য একটি কোম্পানির সঙ্গে আলোচনাও হয়েছে বলে জানিয়েছিলেন খন্দকার এনায়েতুল্লাহ। তখন তিনি বলেছিলেন, 'আমরা ১০ থেকে ১৫ দিনের জন্য ঢাকার পাঁচটি সড়ককে পাইলট প্রজেক্ট হিসেবে নেব। সেখানে এ সিস্টেমের টিকিট বিক্রি পরীক্ষা করে দেখা হবে। আমরা যদি এই প্রজেক্টে সফলতা পাই, তবে আশা করছি পুরো ঢাকা শহরেই গণপরিবহনে ই-টিকিটিং সিস্টেম চালু হয়ে যাবে।'

বিভি/টিটি

মন্তব্য করুন: