• NEWS PORTAL

  • বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২

নিজের চরকায় তেল দেন

জাকারিয়া জাহাঙ্গীর

প্রকাশিত: ১৮:৫০, ৩ অক্টোবর ২০২২

আপডেট: ১২:৪৫, ৪ অক্টোবর ২০২২

ফন্ট সাইজ
নিজের চরকায় তেল দেন

পাগল উলঙ্গ হয়ে নাচেন, তার দিকে কেউ ফিরেও তাকান না। কিন্তু একজন সভ্য মানুষ শার্টের একটা বোতাম খোলা রাখলেও সেদিকে মানুষের দৃষ্টি পড়ে—এটাই স্বাভাবিক। এই বোধটুকু যাদের নেই তারা সমাজে বিভিন্ন স্তরে নেতৃত্ব দেন কীভাবে?

সাহিত্য, ও সংস্কৃতি মানুষের জন্য উন্নত মনুষ্যত্ব বিকাশের মাধ্যম। যারা এই মাধ্যমগুলোতে কাজ করে খ্যাতি অর্জন করেন; বর্তমান ভাষায় যারা সেলিব্রিটি—তাদের দিকে জাতি তাকিয়ে থাকে। বিশেষ করে নতুন প্রজন্ম তাদের ভালোমন্দ ফলো করে, নিজেদের মধ্যে চর্চা, ক্ষেত্রবিশেষ প্রতিযোগিতা করে। তাই তাদের কাছ থেকে নেতিবাচক কোনোকিছুই জাতি আশা করে না।

আভিজাত্য স্পর্শ করলে চরিত্র বখে যায়—মনুষ্যসমাজে এটা একটা স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। যদিও সবাই এক নয়, সুযোগ পেলেই সবার চরিত্র নষ্ট হয় না। অনেকে নিজেকে ধরে রাখতে পারেন। একটা বিষয় ধ্রুব সত্য—খ্যাতির ভার, টাকার ভার, নারীর ভার, ক্ষমতার ভার ও অস্ত্রের ভার সবাই বইতে এবং সইতে পারে না।

আপনি পুরুষ? তাহলে শুনুন-
ধরুন, আপনি শাকিব খানের মতো সেলিব্রিটি হলেন। খ্যাতি, টাকা, ক্ষমতা আপনার হাতে গড়াগড়ি খায়। আপনি কি পারবেন নিজেকে সাধু করে রাখতে? শাকিব খান তো তিন ঘরে তিন খান জন্ম দিয়েছেন বলে চাউর হয়েছে, আপনি হলে কয়টা সন্তান জন্ম দিতেন—একবার হিসাব মেলাবেন।

আপনি নারী? আপনিও শুনুন-
মনে করুন, শাকিব খানের সঙ্গে আপনার পরিচয় হলো, সখ্যতা হলো। আপনার তাকে মনে ধরলো কিংবা শাকিব খান চাইলে আপনার এগিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে—ভাবুন তো তার বাচ্চা আপনার পেটে ধারণ করতে একবারও কি আপনার প্রেমিক বা স্বামী বেচারার চেহারাটা মনে পড়বে!

দায়িত্ববোধ সব পুরুষের থাকে না, সবাই সব দায়িত্ব গ্রহণ করতেও পারে না—এটা যেমন ঠিক, তেমনি সব নারীও প্রকৃত পুরুষের সান্নিধ্য বা প্রকৃত ভালোবাসা গ্রহণ করতে পারে না। অধিকাংশ নারীই খান সাহেবের মতো জৌলুশভরা ভালোবাসার পেছনে ছুটে। প্রতারিত হলে অবশেষে দোষারোপ করে সমগ্র পুরুষজাতিকে। কিন্তু আভিজাত্যের লোভ বা আবেগ যে তাকে ঠকিয়েছে তা বুঝতে পারে কজন নারী!

প্রবাদ আছে—‘সুযোগের অভাবে সবাই সৎ’। তাই বলি—কে কার বাচ্চা পেটে ধরলো-এসব সমালোচনা বাদ দেন। পারলে নিজের চরকায় তেল দেন। আর হ্যাঁ—মিডিয়া বা মিডিয়াকর্মীদের কথা আলাদা, তারা সবকিছুর চুলচেরা বিশ্লেষণ করতে পারে। তারা এই কাজ না করলে আপনাদের সমালোচনার খোরাকই বা আসবে কোত্থেকে?

লেখক: কবি, সাংবাদিক, প্রাবন্ধিক।

(বাংলাভিশনের সম্পাদকীয় নীতিমালার সঙ্গে লেখকের মতামতের মিল নাও থাকতে পারে। প্রকাশিত লেখাটির আইনগত, মতামত বা বিশ্লেষণের দায়ভার সম্পূর্ণরূপে লেখকের, বাংলাভিশন কর্তৃপক্ষের নয়। লেখকের নিজস্ব মতামতের কোনো প্রকার দায়ভার  বাংলাভিশন নিবে না।)

মন্তব্য করুন: