• NEWS PORTAL

  • মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট ২০২২ | ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯

তাইওয়ানের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যে আজ ঢাকা আসছেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০৮:৫৬, ৬ আগস্ট ২০২২

আপডেট: ০৮:৫৮, ৬ আগস্ট ২০২২

ফন্ট সাইজ
তাইওয়ানের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যে আজ ঢাকা আসছেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

তাইওয়ানের সঙ্গে চরম উত্তেজনার মধ্যে দুদিনের সফরে আজ ঢাকায় আসছেন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই। সকাল সাড়ে ১১টায় চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বাংলাদেশে পৌঁছানোর কথা রয়েছে।  সফরে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেনের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন। 

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, শনিবার (৬ আগস্ট) চীনা মন্ত্রীর ঢাকা সফর শুরু হবে। চীন দূতাবাস ৫ আগস্ট থেকে তার সফর শুরুর প্রস্তাব দিলেও পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনের কম্বোডিয়া সফরের কারণে তা একদিন পেছানো হয়েছে।

এর আগে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনাসহ অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে সহযোগিতার বিষয়ে চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ইর বাংলাদেশ সফরে বেশ কয়েকটি চুক্তি সই ও নবায়ন হতে পারে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আসন্ন ঢাকা সফরকালে ৮টি চুক্তি ও সমঝোতা সইয়ের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। এছাড়াও এই সফরে দুই দেশের দ্বিপক্ষীয় বিভিন্ন বিষয় ছাড়াও আন্তর্জাতিক ও বহুপক্ষীয় বিষয়েও আলোচনা হতে পারে। সফরে ৮টি চুক্তি ও সমঝোতার প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘দুর্যোগ মোকাবিলায় চুক্তি হতে পারে, যার মধ্যে হার্ডওয়্যার ও সফটওয়্যার-দুটিই থাকবে। এর বাইরে সংস্কৃতি বিনিময় নিয়ে একটি চুক্তি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে একটি শিক্ষাসংক্রান্ত বিনিময় চুক্তি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন শুক্রবার (৫ আগস্ট) বিকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফর চূড়ান্ত হওয়ার কথা জানিয়ে বলেন, ‘উনি এখানে আসবেন। তো, আমাদের চায়নিজ দূতাবাস একটা প্রোগ্রাম ডিজাইন করেছিল- তারা আমাদের সেই প্রস্তাবটা দিয়েছে, কয় তারিখে আসবেন। তারা যে প্রস্তাবটা দিয়েছিল, সে অনুযায়ী আমি ওই সময়ে থাকব না দেশে। থাকব না বলে, আমি বলেছি যে, চায়নিজ পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমার শহরে আসবেন, আর আমি উনাকে রিসিভ করব না, আমার সাথে দেখা হবে না- এটা ভালো দেখাবে না। এ জন্য আমি একটা পাল্টা প্রস্তাব দিয়েছি, দুয়েক দিন যদি তিনি পেছাতে পারেন, তাহলে আমাদের দুপক্ষের জন্য উপকার হবে।’

তিনি বলেন, ‘কম্বোডিয়ার (সাথে ঢাকার) সরাসরি ফ্লাইট নাই। যেটা আর্লিয়েস্ট ফ্লাইট, সেটাতে আসবো। আসার পরপর আমি চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে বৈঠক করতে পারব। মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, কম্বোডিয়া থেকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন গত ৬ আগস্ট বিকালে পৌঁছাতে পারলে সন্ধ্যায় দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠক হবে। আর না হয় পরদিন ৭ আগস্ট সকালে বৈঠক হবে। 

বিভি/এইচএস

মন্তব্য করুন: