• NEWS PORTAL

শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

ফেনীতে বাবা-ছেলে ও স্বামী-স্ত্রীর প্রতিদ্বন্দ্বী হওয়ার চেষ্টা, ভেস্তে দিলো ইসি!

রফিকুল ইসলাম, ফেনী

প্রকাশিত: ২৩:২২, ৪ ডিসেম্বর ২০২৩

আপডেট: ২৩:২৫, ৪ ডিসেম্বর ২০২৩

ফন্ট সাইজ
ফেনীতে বাবা-ছেলে ও স্বামী-স্ত্রীর প্রতিদ্বন্দ্বী হওয়ার চেষ্টা, ভেস্তে দিলো ইসি!

ফেনী-৩ আসনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেয়েছেন আবুল বাশার। সেই আসনেই স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে মনোনয়ন জমা দিয়েছিলেন তারই ছেলেন ইসতিয়াক আহমেদ সৈকত। কিন্তু ছেলের মনোনয়ন অবৈধ ঘোষণা করেছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা।

অপরদিকে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন চেয়েও পাননি সাবেক সাংসদ হাজী রহিম উল্যাহ ও তার স্ত্রী পারভীন আক্তার। এখানেও স্ত্রীর মনোনয়ন অবৈধ ঘোষণা করলেও টিকে গেছে স্বামী রহিম উল্যার মনোনয়ন। এতে স্বামী-স্ত্রী ও বাবা-ছেলের প্রতিদ্বন্দ্বীতা নিয়ে যে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছিল তাতে ভাটা পড়েছে।

শুধু এই ২ জন নয়। ফেনীর ৩টি আসনে এভাবে মনোনয়ন অবৈধ ঘোষণা হয়েছে ১৭ জন প্রার্থীর। সোমবার (৪ ডিসেম্বর) যাচাই-বাছাই শেষে নানান অভিযোগে তাদের মনোনয়ন অবৈধ ঘোষণা করা হয়। 
জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই অনুষ্ঠানে তাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করেন রিটানিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মুছাম্মৎ শাহীনা আক্তার। এই সময় তিনি ফেনীর ৩টি সংসদীয় আসনে ৩৮ জন প্রার্থীর মধ্যে ২১ জনের মনোনয়নপত্র বৈধ  ঘোষণা করেন। 

জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ভোটারদের তথ্যে মৃত ব্যক্তির নাম দেওয়ায় ফেনী-৩ আসনের আওয়ামী লীগের দলীয় প্রাথী আবুল বাশারের ছেলে স্বতন্ত্র প্রার্থী ইসতিয়াক আহমেদ সৈকত ও  তথ্যে গড়মিল থাকায় সাবেক সাংসদ স্বতন্ত্র প্রার্থী রহিম উল্যাহ স্ত্রী  স্বতন্ত্র প্রার্থী পারভীন আক্তারসহ ১৭ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল 

মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়া প্রার্থীরা হলেন- ফেনী-১ পরশুরাম- ফুলগাজি - ছাগলনাইয়া) আসনে জাতীয় পার্টির শাহরিয়ার ইকবাল  পাটোয়ারী, বাংলাদেশ কংগ্রেস আনোয়ার কামরান মোর্শেদ, মো. আলমগীর আলম। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে  আবদুর রউফ, মিজানুল হক, তাজুল ইসলাম মজুমদার, মো.ফখরুল ইসলাম মজুমদার ও আবুল হাশেম।

ফেনী-২ ( ফেনী সদর ) আসেন  বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তি জোট মাহবুব মোর্শেদ ও  স্বতন্ত্র প্রাথী জেলা আওয়ামীলীগের নেতা এডভোকেট আনোয়ারুল করিম ফারুক।

ফেনী-৩ (দাগনভূঞা-সোনাগাজী): গণতান্ত্রিক ফোরাম (পিডিএফ) আজিম উদ্দিন আহমেদ, সাংস্কৃতিক মুক্তি জোট জোবায়ের ইবনে সুফিয়ান। স্বতন্ত্র প্রার্থী পারভীন আক্তার, ইসতিয়াক আহমেদ সৈকত, আবদুল কাশেম আজাদ, জেড এম কামরুল আনাম, আনোয়ারুল কবির (রিন্টু আনোয়ার)

বৈধ প্রার্থীরা হলেন- ফেনী-১ আসনে আওয়ামী লীগের আলা উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী, জাসদ-এর শিরিন আখতার, জাকের পার্টির রহিম উল্যাহ ভূইয়া, বাংলাদেশ ইসলামীক ফ্রন্ট-এর কাজী মো. নুরুল আলম, বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তি জোটের মাহবুব মোর্শেদ মজুমদার, তৃণমূল বিএনপির মো. শাহজাহান সাজু।

ফেনী-২ আসনে (সদর)  আওয়ামী লীগের নিজাম উদ্দিন হাজারী, জাতীয় পার্টির খন্দকার নজরুল ইসলাম, তৃণমূল বিএনপির আমজাদ হোসেন সবুজ, বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তি জোট মো. নুরুল ইসলাম ভূইয়া, জাকের পার্টির নজরুল ইসলাম, বাংলাদেশ ইসলামীক ফ্রন্ট-এর মাওলানা নুরুল ইসলাম, বাংলাদেশ কংগ্রেস মোহাম্মদ হোসেন, খেলাফত আন্দোলন আবুল হোসেন।

ফেনী-৩ (দাগনভূঞা ও সোনাগাজী) আসনে  জাতীয় পার্টির লে. জে. (অব.) মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী, আওয়ামী লীগের মো. আবুল বাশার, বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টি তবারক হোসেন, জাকের পার্টি আবুল হোসেন, ইসলামীক ফ্রন্ট বাংলাদেশ মো. আবু নাসির, স্বতন্ত্র প্রার্থী রহিম উল্যাহ, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট নিজাম উদ্দিন।

বিভি/কেএস/এইচএস

মন্তব্য করুন:

সর্বাধিক পঠিত