• NEWS PORTAL

  • বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২ | ১৬ আষাঢ় ১৪২৯

সাতক্ষীরায় সাড়া জাগিয়েছে হান্নান মোড়লের রকমেলন 

আসাদুজ্জামান, সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৯:০৫, ২১ মে ২০২২

ফন্ট সাইজ
সাতক্ষীরায় সাড়া জাগিয়েছে হান্নান মোড়লের রকমেলন 

সাতক্ষীরায় সম্পূর্ণ অর্গানিক ও আধুনিক মালচিং পেপার পদ্ধতিতে উন্নত মানের বুলেট জাতের রকমেলন ফল চাষা বাদ করে সাড়া জাগিয়েছে তালা উপজেলার নগর ঘাটা গ্রামের কৃষক হান্নান মোড়ল।

এবছর প্রথমবারের মত নিজের ২০শতাংশ জমিতে রকমেলন ফল চাষ করেছেন তিনি। এই ফল চাষে তার খরচ হয়েছে প্রায় ৪৫ থেকে ৫০হাজার টাকা। এ থেকে তিনি ফলন পাবেন প্রায় ২ হাজার ৫০০ কেজি । যার প্রতি কেজি রকমেলন ফলের মূল্য পাবেন তিনি ৭০ থেকে ৭৫ টাকা টাকা। যা থেকে সর্বমোট  তিনি প্রায় ২ লক্ষ টাকা উপার্জন করবেন বলে আশাবাদী।

জানা গেছে, রকমেলন হল মাস্কমেলন গোত্রের একটি উচ্চমূল্যের বিদেশি ফল। ফলের উপরের ত্বক পাথর (রক) এর মত, তাই এটি বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন নামে  পরিচিত। পুষ্টিগুণে রকমেলন অনন্য। বিভিন্ন এন্টি-অক্সিডেন্ট সম্পন্ন এই ফলে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, ভিটামিন এ এবং সি। যা উচ্চ রক্তচাপ ও এজমা কমিয়ে দেয়। 

এতে উপস্থিত বেটা ক্যারোটিন ক্যান্সার রোধ করে। এ ছাড়া এটি খুব রসালো ফল। এতে রয়েছে ৯০% পানি। যা হাইড্রেশন বজায় রাখে ও হজমে সহায়তা করে। চুল ও ত্বকের জন্যও এই ফল খুবই উপকারি। অল্প সময়ের মধ্যে উন্নত জাতের বিদেশি রকমেলন ফল এ অঞ্চলে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

কৃষক হান্নান মোড়ল জানান, ইউটিউব থেকে ভিডিও দেখে এবং পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন’র সহযোগিতায় ও উন্নয়ন প্রচেষ্টার কৃষি ইউনিটের আওতায় উদ্বুদ্ধ হয়ে তিনি রকমেলন ফল চাষ করেছেন। উন্নয়ন প্রচেষ্টার কৃষি ইউনিট এই চাষে বিভিন্ন উপকরণ যেমন বীজ, মালচিং পেপার, জৈব সার ক্রয়ে আর্থিক ও কারিগরি সহায়তা করেছেন ।

উন্নয়ন প্রচেষ্টার কৃষি অফিসার নয়ন হোসেন বলেন, ‘রকমেলন একটি বাঙ্গি জাতীয় ফসল। এটি ২ থেকে ৩ কেজি ওজন হয়ে থাকে। এর চারা লাগানোর প্রায় ৫৫-৬০ দিন বয়সে উত্তোলন করা যায়। কৃষক হান্নান মোড়লের রকমেলন চাষ এই এলাকায় কৃষকদের মাঝে বেশ সাড়া জাগিয়েছে। আগামীতে অনেকেই রকমেলন চাষ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

সাতক্ষীরা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক নুরুল ইসলাম জানান, রকমেলন একটি লাভজনক ফল। এ বটি জেলায় এই প্রথম চাষাবাদ হয়েছে।র্তমানে প্রতি কেজি রকমেলন ৭০ টাকা বিক্রি হচ্ছে। যা গত রমজান মাসে ১২০ থেকে ১৫৫ টাকা বিক্রি হয়েছে। ধীর ধীরে অন্য কৃষকরা রকমেলন চাষে আগ্রহী হয়ে উঠবেন বলে তিনি আশাবাদী।
 

বিভি/এজেড

মন্তব্য করুন: