• NEWS PORTAL

  • বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

মশা গন্ধ শুঁকে নির্বাচন করে পছন্দের শিকার! 

লাইফস্টাইল ডেস্ক

প্রকাশিত: ২০:৩০, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২২

ফন্ট সাইজ
মশা গন্ধ শুঁকে নির্বাচন করে পছন্দের শিকার! 

সম্প্রতি ডেঙ্গু নিয়ে উদ্বেগ বেড়েছে সারাদেশে। একের পর এক ডেঙ্গু আক্রান্তের খবর এবং মৃত্যুর খবরে উদ্বেগ আরও বেড়েছে। এমন অবস্থায় জানা দরকার মশা কোন মানুষকে বেশি কামড়ায় এবং কেন? মশা কীভাবে নির্বাচন করে- কাকে কামড়াবে?

কিছু মানুষকে মশা কম কামড়ায় আবার কিছুজনকে বেশি। এ ধারনার পেছনে রয়েছে যথেষ্ট বৈজ্ঞানিক কারণ।

স্ত্রী মশা মানুষের রক্ত খায়, পুরুষ মশার সে ক্ষমতা নেই। পুরুষ মশা তার জীবনীশক্তি অর্জন করে উদ্ভিদের রস থেকে। স্ত্রী মশা রক্ত পান করে, কারণ রক্ত তার প্রজনন চক্রের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। ঠিক এই কারণেই স্ত্রী মশা রক্তের দ্রুত উৎস সন্ধানে সক্ষম। স্ত্রী মশা রক্তের উৎস সন্ধানে তার ঘ্রাণশক্তির ওপর অনেকাংশে নির্ভর করে। রাতে যে সমস্ত প্রজাতির প্রাণীরা সক্রিয় থাকে তারা সম্পূর্ণভাবে তাদের রিসেপটরের ওপর নির্ভরশীল। এখন মানুষ সাধারণভাবে শ্বাস-প্রশ্বাসের সঙ্গে কার্বন- ডাই-অক্সাইড নির্গমন করে। আর এই কার্বন-ডাই-অক্সাইড-ই রক্তের উৎস সন্ধানের ক্ষেত্রে মশার প্রধান অস্ত্র। মশা কার্বন-ডাই-অক্সাইডের ক্ষেত্রে যথেষ্ট সংবেদনশীল। মশার পায়ের রিসেপটর কোষ কার্বন-ডাই-অক্সাইডের অণুকে আবদ্ধ করতে সক্ষম। মশার পায়ের রিসেপটর কোষ কার্বনের অণুকে আবদ্ধ করে তার মস্তিষ্কে সংকেত পাঠায়। ফলে মশা সহজেই তার শিকারের কাছে পৌঁছে যায়।   

কিন্তু মানুষ ছাড়াও অন্য অনেক বস্তুও কার্বন-ডাই-অক্সাইড নির্গমন করে। এ ক্ষেত্রে জীবিত প্রাণীদের মশা আলাদা করে তাদের দেহ থেকে নির্গমন হওয়া গৌণ ঘ্রাণসংকেতের ওপর নির্ভর করে। আবার ভোর এবং সন্ধ্যার দিকে মশা তাদের রক্তের উৎস শনাক্ত করতে তাদের দৃষ্টিশক্তির উপর নির্ভরশীল। দেখা গেছে, হালকা রঙের পোশাক পরা ব্যক্তিকে মশা বেশি আক্রমণ করছে। কারণ হালকা রঙকে সহজে আলাদা করা যায়। আবার এও দেখা গেছে বেশকিছু প্রজাতির মশা মানবশরীরের বিশেষ অংশেই কামড়ায়। যেমন এডিস মশা মানুষকে কামড়ায় সাধারণত গোড়ালির তলার অংশে।

বিভি/টিটি

মন্তব্য করুন: