• NEWS PORTAL

  • শনিবার, ২২ জুন ২০২৪

Inhouse Drama Promotion
Inhouse Drama Promotion

রেসকিউ রোবট লিগ-২০২৪

আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতার ফাইনালে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিত: ২০:৫২, ৫ এপ্রিল ২০২৪

আপডেট: ২১:০৪, ৫ এপ্রিল ২০২৪

ফন্ট সাইজ
আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতার ফাইনালে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা

ছবি: তৈরি উদ্ধার রোবটসহ টিম মেম্বাররা

আন্তর্জাতিক রোবোটিক্স প্রতিযোগিতা ‘রোবোকাপ রেসকিউ রোবট লিগ-২০২৪’ এর ফাইনালে উঠেছে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির একটি রেসকিউ রোভার টিম। বিএসআরএম স্কুল অফ ইঞ্জিনিয়ারিং-এর ল্যাবরেটরি অফ স্পেস সিস্টেম ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি-ল্যাসেট এর এই দলটির নাম ‘টিম ব্র্যাকইউ অলটার’। তারা জরুরি উদ্ধার কাজের জন্যে একটি রোবট উদ্ভাবন করে এই সাফল্য অর্জন করেন।

প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বটি আগামী ১৫ জুলাই থেকে ২৪ জুলাইয়ের মধ্যে নেদারল্যান্ডের আইন্দহোভেনে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। বিভিন্ন বিষয়ের ১৯ জন সদস্য নিয়ে গঠিত এই দলটির নেতৃত্বে আছেন মেহেদী হাসান। মূল সদস্যদের মধ্যে আছেন- শাহোরিয়া আহমেদ দুর্জয় (যান্ত্রিক এবং ম্যানুফ্যাকচারিং), নিয়াজ নাফি রহমান (কন্ট্রোল অ্যান্ড এআই), তোহোরা তামিম অনুপমা (কমিউনিকেশন অ্যান্ড নেটওয়ার্কিং), মেহেদী হাসান (কন্ট্রোল অ্যান্ড এআই), ফারাহ হাসান প্রীতি (ইলেকট্রনিক্স অ্যান্ড ফার্মওয়্যার), এবং মুস্তাক মুজাহিদ (মেকানিক্যাল অ্যান্ড ম্যানুফ্যাকচারিং)।

টিমের তৈরি উদ্ধার রোবট প্রসঙ্গে ল্যাসেট-এর রিসার্চ অ্যাসিস্ট্যান্ট মুনতাসির আহাদ বলেন, ‘বাংলাদেশে সফল ও স্মার্ট রেসকিউ অপারেশনে সেনাবাহিনী, র‌্যাব এবং ফায়ার সার্ভিসের মাধ্যমে বিভিন্ন  ধরনের রেসকিউ রোবট ব্যবহার করা হচ্ছে। তবে এই রোবটগুলি খুব ব্যয়বহুল এবং বিক্রয়োত্তর পরিষেবা নেই। অপরদিকে আমাদের উদ্ভাবিত রোভার পুরোপুরি স্থানীয় উপাদান দিয়ে তৈরি এবং তুলনামূলক ভালো বৈশিষ্ট্যসম্পন্ন। অন্যান্য উদ্ধার রোবটের তুলনায় এটি অত্যন্ত সাশ্রয়ী।

ছবি: ‘টিম ব্র্যাকইউ অলটার’

ব্র্যাকইউ অল্টারের উপদেষ্টা হিসেবে আছেন- আবদুল্লাহ হিল কাফি এবং রায়হানা শামস ইসলাম অন্তরা। তার দুইজনই ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের ত্রিপল-ই বিভাগের প্রভাষক এবং ল্যাসেটের পরিচালক। এছাড়া তারা বাংলাদেশি ন্যানো স্যাটেলাইট ব্র্যাক অন্নেশার মূল প্রকৌশলী হিসেবেও কাজ করেছেন।

উল্লেখ্য ‘রোবোকাপ রেসকিউ রোবট লিগ’একটি আন্তর্জাতিক রোবোটিক্স এবং কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই) প্রতিযোগিতা। এই প্রতিযোগিতায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে জরুরি উদ্ধারকাজে ব্যবহৃত রোবট উদ্ভাবকরা অংশ নেন।   তাদের উদ্ভাবিত রোবটগুলি দূর নিয়ন্ত্রিত এবং স্বচালিত। ধসে পড়া ভবনের মতো জটিল পরিবেশে এই রোবট বিশেষ কাজে লাগে। 

বিশ বছর আগে চালু হওয়া এই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বিশ্বের প্রচলিত উদ্ধার রোবটগুলিকে উন্নতকরণ এবং পরীক্ষা ও প্রশিক্ষণের জন্য মান নির্ধারণ করতে বার্ষিক মূল্যায়ন করা হয়।

বিভি/এমআর

মন্তব্য করুন: