• বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২ | ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

পঞ্চগড়ে ভরা মৌসুমে হঠাৎ কাঁচা চা পাতার দর পতন

পঞ্চগড় প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৪:৫৫, ১৪ মে ২০২২

ফন্ট সাইজ
পঞ্চগড়ে ভরা মৌসুমে হঠাৎ কাঁচা চা পাতার দর পতন

হঠাৎ কাঁচা চা পাতার দর পতন হয়েছে পঞ্চগড়ে। বছরের শুরুতে প্রতি কেজি চা পাতা ২৪ টাকায় বিক্রি করতে পারলেও ভরা মৌসুমে এবার দাম কমিয়ে ১৩ থেকে ১৪ টাকা কেজিতে কিনছেন কারখানা মালিকরা। চা চাষীদের অভিযোগ, মালিকদের সিন্ডিকেটের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত তারা। 

জানা গেছে, পঞ্চগড়ে ১০ হাজার দুশ ৯২ একর জমিতে চা চাষ হয়েছে। এসব চা বাগান থেকে ২০২১ উৎপাদন মৌসুমে সাত কোটি ৩৫ লাখ ৬৮ হাজার কেজি সবুজ পাতার মাধ্যমে চা উৎপাদন হয়েছে এক কোটি ৪৫ লাখ ৪০ হাজার কেজি। 

তবে এবারও চা কারখানার মালিকদের সিন্ডিকেটের কারণে ন্যায্যমুল্য থেকে বঞ্চিত ক্ষুদ্র চা চাষীরা। চা পাতার মুল্যবৃদ্ধির দাবিতে মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছেন চা চাষীরা। 

যদিও সিন্ডিকেটের কথা অস্বীকার করেছেন কারখানা মালিকরা। তাদের দাবি চা চাষীরা মান ঠিক রেখে পাতা সংগ্রহ করছেন না। এছাড়া চট্টগ্রাম অকশন মার্কেটেও চায়ের দাম কম।

পঞ্চগড়ের চা ফ্যাক্টরির মালিক আরিফুজ্জামান সুমন জানান, সিন্ডিকেট কেন দাম কমাবে? চাষীদের নিয়েই তো কারখানা চলে। কিন্তু চাষীরা সংগ্রহের সময় গুণগত মান ঠিক রাখতে পারছে না। পাতা সংগ্রহের সময় কোনো সমস্যা হচ্ছে বিধায় পাতার দাম কমে যাচ্ছে।

অন্যদিকে, স্যালিল্যান্ড টি ফ্যাক্টরির ম্যানেজার আব্দুস সালাম বলেন, মালিকদের কোনো সিন্ডিকেট নেই। আসলে চট্টগ্রামের অকশন মার্কেটে চায়ের দাম কমে যাওয়ায় আমাদেরও কম দামে চা পাতা কিনতে হচ্ছে। 

তবে আলোচনার মাধ্যমে কাঁচা চা পাতার মূল্য পুনঃনির্ধারণ হতে পারে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক। 

পঞ্চগড়ের জেলা প্রশাসক মো. জহিরুল ইসলাম বলেন, চাষী কিংবা মালিক কেউই যেন ক্ষতিগ্রস্থ না হয় সেদিকে লক্ষ্য রেখে আলোচনার মাধ্যমে কাঁচা চা পাতার মূল্য পুনঃনির্ধারণ করতে হবে। কেননা মালিক ছাড়া চাষীরা চলতে পারবেন না আবার চাষীদের চা ছাড়াও মালিকরা চলতে পারবেন না।

একদিকে চা পাতার দাম পাচ্ছেন না, অন্যদিকে সেচ, সার, কীটনাশকের দামের সাথে বেড়েছে শ্রমিকের মজুরিও। হতাশা কাটছে না চা চাষিদের। তবে প্রশাসনিক সহায়তায় সুদিন ফেরার আশাও করছেন তারা।

বিভি/এজেড

মন্তব্য করুন: