• NEWS PORTAL

মঙ্গলবার, ০৩ অক্টোবর ২০২৩

ডিভোর্সের পর আরেক অভিনেতার সঙ্গে অভিনেত্রীর প্রেমের গুঞ্জন

প্রকাশিত: ১৭:১২, ১ জুন ২০২৩

ফন্ট সাইজ
ডিভোর্সের পর আরেক অভিনেতার সঙ্গে অভিনেত্রীর প্রেমের গুঞ্জন

নাটকের সেটে পরিচয়, সেখান থেকে প্রেম ও বিয়ে। বিয়ের দুই বছরের মাথায় আইনী বিচ্ছেদ। কিন্তু বিচ্ছেদের পর আবারও প্রেমের গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে ওই অভিনেত্রীর। এবারও নাম শোবিজ অঙ্গনেই। বলছি ভারতীয় বাংলা টিভি সিরিজের অভিনেতী তিয়াসা লেপচার কথা।

২০১৭-তে মাত্র ১৯ বছরেই অভিনেতা সুবান রায়ের সঙ্গে ঘর বেঁধেছিলেন 'কৃষ্ণকলি' তিয়াসা। তাদের প্রেমের শুরু হয়েছিল স্টুডিও পাড়াতেই। বহুদিন সম্পর্কের টানাপোড়েনের পর তবে গতবছর ফেব্রুয়ারি মাসেই আইনি বিচ্ছেদ হয়েছিল তিয়াসা ও সুবানের। এদিকে টলিপাড়ায় জোর গুঞ্জন আরেক অভিনেতা নীল ভট্টাচার্যের সঙ্গেই নাকি আদপে প্রেম করছেন তিয়াসা রায়।

মাঝে নীল ভট্টাচার্য ও তার অভিনেত্রী স্ত্রী তৃণা সাহার সম্পর্কেও ভাঙনের গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল। টলিপাড়ায় কানপাতলেই শোনা যাচ্ছিল, সেটা নাকি নীলের সঙ্গে তিয়াসার বিশেষ বন্ধুত্বের কারণেই ঘটেছিল। সত্যিই কি তাই? যদিও এই গুঞ্জন নিয়ে নীল কিংবা তিয়াসা কখনওই কোনও মন্তব্য করেননি।

এদিকে ২০১৮ সালে থেকে জনপ্রিয় 'কৃষ্ণকলি' ধারাবাহিকের দৌলতে বেশকয়েক বছর টানা একসঙ্গে কাজ করেছেন নীল ও তিয়াসা। সম্প্রতি, 'বাংলা মিডিয়াম' ধারাবাহিকেও ফের একসঙ্গে জুটি বেঁধে অভিনয় করছেন তারা। পর্দায় নীল-তিয়াসা জুটিকে বেশ পছন্দও করেন দর্শকরা। সিরিয়ালের পাশাপাশি একসঙ্গে বহু রিল ভিডিয়ো বানাতেও দেখা যায় তাঁদের। তবে নতুন প্রেমের গুঞ্জনে ঠিক কী বলছেন অভিনেত্রী তিয়াসা লেপচা?

ভারতীয় গণমাধ্যমে তিয়াসা জানিয়েছেন, বিচ্ছেদের পর তিনি এখন শুধুই মন দিয়ে কাজ করতে চান। প্রেম নিয়ে ভাবার তার সময় নেই। রাজনৈতিক মিছিলে হাঁটলেও রাজনীতিতে নয়, আপাতত অভিনয়কেই ধ্যানজ্ঞান করতে চান তিনি। প্রেম নিয়ে মজা করে তিয়াসা বলেন, ‘সবাইকে বলছি ভালো ছেলে খুঁজে দিতে, কিন্তু কেউ দিচ্ছে না।

এদিকে তিয়ার সঙ্গে বিচ্ছেদের পর অভিনেতা সুবান রায় বলেছিলেন, তিয়াসাকে তিনি বিশ্বাস করে ঠকেছেন। তাই আপাতত প্রেম, ভালোবাসা এবার তোলা থাক। যদি কখনও এমন মানুষ পান, যে ধাক্কা দেবে না, তাহলে না হয় দেখা যাবে। তবে ভেঙে যাওয়া সম্পর্ক নিয়ে আলাদা করে তিয়াসাকে দোষারোপ করতে চান না বলেও জানিয়েছিলেন সুবান। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

বিভি/এজেড

মন্তব্য করুন: