• NEWS PORTAL

  • বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

বাংলাভিশনে সংবাদ প্রচার

ক্যান্সার আক্রান্ত তানিয়াকে বিনা খরচে চিকিৎসা দিচ্ছে হিউম্যান এইড হাসপাতাল

প্রকাশিত: ২৩:৪৬, ২৭ মার্চ ২০২৪

আপডেট: ২৩:৩৪, ২৯ মার্চ ২০২৪

ফন্ট সাইজ
ক্যান্সার আক্রান্ত তানিয়াকে বিনা খরচে চিকিৎসা দিচ্ছে হিউম্যান এইড হাসপাতাল

অবশেষে চিকিৎসা পেতে যাচ্ছেন ফেনীর ক্যান্সার আক্রান্ত গৃহকর্মী তানিয়া আক্তার। বাংলাভিশনের প্রতিবেদক কেফায়েত শাকিলের মধ্যস্ততায় রাজধানীর দারুসসালামের হিউম্যান এইড রিসার্চ ল্যাব এন্ড হসপিটালে ভর্তি করা হয়েছে তাকে। হাসপাতালটি বিনা খরচে চিকিৎসা করবে নিঃস্ব তানিয়া আক্তারের। যার অর্থের যোগান দিবে মানবিক চিকিৎসকদের সংগঠন হিউম্যান এইড বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন।

তানিয়া আক্তারের কোনো অভিভাবক না থাকায় স্থানীয় এক যুবকের সহযোগিতায় বুধবার (২৭ মার্চ) তাকে ঢাকায় আনান সাংবাদিক কেফায়েত শাকিল। পরে দুপুরেই তাকে হিউম্যান এইড রিসার্চ ল্যাব এন্ড হসপিটালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে হাসপাতালটিতে তিনি সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ক্যান্সারবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. মাহফুজুল আহমেদ রিয়াদের অধিনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 

ত্যাজ্য করেছে মা-বাবা: ক্যান্সার আক্রান্ত তানিয়ার অনিশ্চিত জীবন

এ বিষয়ে হিউম্যান এইড বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ডা: শেখ মইনুল খোকন বাংলাভিশনকে বলেন, আমাদের সংগঠন থেকে আমরা সবসময় গরিব ও অসহায় রোগীদের জন্য স্বল্প খরচে উন্নত চিকিৎসা সেবা দেওয়ার করে আসছি। কিছু কিছু ক্ষেত্রে আমরা তাদের সম্পূর্ণ খরচও বহন করার চেষ্টা করি। তানিয়া আক্তারের কষ্ট নিয়ে বাংলাভিশনে প্রকাশিত প্রতিবেদনটি আমাদের নজরে এলে তার অসহায়ত্বের বিবেচনায় আমরা তাকে আমাদের স্বাধ্যমতো চিকিৎসা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেই। এখন তার পরীক্ষা-নিরীক্ষা শুরু হয়েছে। ক্যান্সারের বিষয়টি সুনিশ্চিত হলে তার পরবর্তী চিকিৎসার বিষয়ে আমরা সিদ্ধান্ত নেব।

খরচের বিষয়ে তিনি বলেন, আমরা আমাদের সাধ্যমতো তাকে চিকিৎসা দেওয়ার চেষ্টা করছি। আমাদের প্রতিষ্ঠানটিও কিছু ডাক্তারের স্বেচ্ছ্বাশ্রম ও মানুষের দানে চলে। যেহেতু চিকিৎসকের খরচ ছাড়াও ক্যান্সার চিকিৎসার আরও অনেক কিছু ব্যয়বহুল। তাই আমরা প্রত্যাশা করি তানিয়া আক্তারের চিকিৎসা খরচ কিছুটা লাঘব করতে বিত্তবানদের কেউ সাহায্যের হাত বাড়াবে। তাহলে সেসহ অসহায় রোগিদের সেবা দেওয়া আমাদের জন্য আরও সহজ হবে।

আরও পড়ুন: ঢাকার ‘গরিবের হাসপাতালে’ ভিজিট নেন না ডাক্তাররা (ভিডিও)

এর আগে গত ২৫ মার্চ অসহায় তানিয়াকে নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে বাংলাভিশন। প্রতিবেদনটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদকের সঙ্গে যোগাযোগ করে  তানিয়াকে বিনা খরচে চিকিৎসা দেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করে হিউম্যান এইড বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন। 

বাংলাভিশনে প্রকাশিত সেই প্রতিবেদনে জানানো হয়, ফেনী সদর উপজেলার ধর্মপুরে জন্ম নেওয়া তানিয়া আক্তার প্রেম করে বিয়ে করায় তাকে ত্যাজ্য করেছে স্বজনরা। গ্রহণ করেনি স্বামীর পরিবারও। বাধ্য হয়ে তারা জেলার ছাগলনাইয়া পৌর এলাকার হিছাছড়া গ্রামের কাজল মজুমদারের বাড়ির একটি অব্যহৃত কক্ষে আশ্রয় নেয়। সেই বাড়িসহ পাশের আরেকটি বাড়িতে কাজ করেই কোনোরকম সংসার চলছিল তার। কিন্তু মাদকাসক্ত সেই স্বামীও  তাকে নিয়মিত নির্যাতন করতো। তবু দুই শিশু সন্তানের দিকে চেয়ে মানিয়ে নিচ্ছিলেন তানিয়া। তার স্বামী যখন মাদক ছেড়ে কাজে মনযোগি হয়েছেন তখনি সড়ক দুর্ঘটনায় মানসিক রোগী হয়ে যান। সবশেষ মারনব্যাধী ক্যান্সার আক্রান্ত হয় তানিয়া। 

তানিয়া মূলত কাজল মজুমদারের বাড়িসহ দুটি বাড়িতে কাজ করে সংসার চালাতেন। দুটি বাসায় কাজ করে তানিয়ার যে আয় তাতে স্বামী ও দুই সন্তানের মুখে খাবার দেওয়াই ছিল দুসাধ্য। দিতে পারেন না দুই শিশু মাদ্রাসার বেতনও। এ অবস্থায় চিকিৎসা বা ওষুধ খাওয়া ছিল তার কাছে বিলাসিতা। তাই চিকিৎসার অবহেলায় পাইলস থেকে হয়েছে ক্যান্সার। যে ঘরে কাজ করেন তাদের সহযোগিতায় রোগ শনাক্ত হলেও ক্যান্সার অপারেশানে প্রায় ৪ লাখ টাকা প্রয়োজন, যা বহন করা ওই দুই পরিবারের পক্ষেও সম্ভব নয়। তাই জীবন বাঁচাতে বিত্তবানদের সহযোগিতা প্রয়োজন বলে প্রতিবেদনে তুলে ধরা হয়। সেই প্রতিবেদন দেখে তানিয়াকে চিকিৎসা দিতে আগ্রহ প্রকাশ করে হিউম্যান এইড বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন।

উল্লেখ্য, হিউম্যান এইড বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন পরিচালিত  হিউম্যান এইড রিসার্চ ল্যাব এন্ড হসপিটালে গরিব ও অসহায় রোগীদের স্বল্প খরচে বা ক্ষেত্রভেদে বিনা খরচে উন্নত চিকিৎসা দিয়ে থাকে। দেশের বিভিন্ন হাসপাতালের মানবিক কিছু চিকিৎসক এখানে এসে স্বল্প খরচে বা বিনামূলে চিকিৎসা দিয়ে থাকেন। বিনা খরচে চিকিৎসা দেওয়ায় ইতোমধ্যে গরিবের হাসপাতাল নামেও পরিচিতি অর্জন করেছে।

বিভি/এজেড

মন্তব্য করুন: