• NEWS PORTAL

  • বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

যে ফুলের বীজ ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে দুর্দান্ত কার্যকরী

প্রকাশিত: ২০:২৩, ২৬ নভেম্বর ২০২২

ফন্ট সাইজ
যে ফুলের বীজ ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে দুর্দান্ত কার্যকরী

কিছুকাল আগেও ডায়াবেটিস সাধারণত ৪০-৪৫ বছর বয়সের পরে দেখা যেত। কিন্তু বর্তমানে শিশু, বৃদ্ধ ও যুবক সব বয়সের মানুষই এই সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। যদি একজন ব্যক্তি একবার এই রোগে আক্রান্ত হন, তবে এটি তাকে সারা জীবনের জন্য ছাড়ে না, কারণ সারা বিশ্বের বিজ্ঞানীরা এখনও পর্যন্ত এর প্রতিষেধক আবিষ্কার করতে সক্ষম হননি। 

ডায়াবেটিস রোগীদের তাদের জীবনযাত্রা এবং খাদ্যাভ্যাসের প্রতি বিশেষ যত্ন নিতে হবে, অন্যথায় রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যেতে পারে এবং তারপরে কিডনির রোগ এবং হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বেড়ে যায়। আজ আমরা জানবো এমন কোন ফুলের বীজ রয়েছে, যার সাহায্যে রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা অনেকাংশে নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

ডায়াবেটিস নিরাময়যোগ্য নয়, এটি নিয়ন্ত্রণযোগ্য

ভেষজ গবেষকরা জানিয়েছেন, পদ্ম ফুলের বীজ ডায়াবেটিস রোগীর জন্য খুবই উপকারী, একে কমল গাট্টাও বলা হয়, যার সাহায্যে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করা যায়। ডায়াবেটিস রোগীদের সর্বদা স্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয় এবং পদ্মফুলের বীজ একটি পুষ্টিকর খাবারের চেয়ে কোনও অংশে কম নয়।

পদ্ম ফুলের বীজে পুষ্টির কোনও অভাব নেই, এটি ভিটামিন বি৬, ম্যাগনেসিয়াম, পটাসিয়াম, আয়রন এবং প্রোটিন সমৃদ্ধ, যা ডায়াবেটিসে খুবই কার্যকরী এবং গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। পদ্ম ফুলের ভিতরে বীজ পাওয়া যায়, যা নিয়মিত খেলে উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়।

 পদ্ম ফুল  পূজার জন্যও ব্যবহৃত হয়

পদ্ম ফুল পূজার জন্য ব্যবহৃত হয়। এই ফুলের শিকড় থেকে সুস্বাদু সবজিও তৈরি করা হয়, যা মানুষ খুব উৎসাহের সঙ্গে খায়। কাদায় বেড়ে ওঠা এই ফুলগুলো সাজসজ্জার কাজেও ব্যবহার করা হয়।

ডায়াবেটিস রোগীদের যতটা সম্ভব এই ফুলের বীজ খাওয়া প্রয়োজন ও উপকারী। আপনার বাড়ির কাছে যদি কোনও পুকুর না থাকে তবে এটি একটি বিশেষ উপায়ে একটি বড় পাত্রে চাষ করা যেতে পারে।

এখানে দেওয়া তথ্য ঘরোয়া প্রতিকারের উপর ভিত্তি করে দেওয়া। তবে রোগরে জন্য অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। সূত্র: নিউজ এইটিন

বিভি/এজেড

মন্তব্য করুন: