• NEWS PORTAL

  • বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

‘ইনটেলিজেন্ট রান্নাঘর’ প্রযুক্তির ছোঁয়া লাগুক আপনার হেঁসেলে

প্রকাশিত: ২২:৪৫, ২২ জানুয়ারি ২০২৩

আপডেট: ২২:৪৬, ২২ জানুয়ারি ২০২৩

ফন্ট সাইজ
‘ইনটেলিজেন্ট রান্নাঘর’ প্রযুক্তির ছোঁয়া লাগুক আপনার হেঁসেলে

গৃহসজ্জার নানা আধুনিক ট্রেন্ডের সাথে প্রতিনিয়ত বদলে যাচ্ছে আমাদের গোটা লাইফস্টাইল। চিরাচরিত ধারণার বাইরে গিয়ে চিন্তা করার প্রবণতা ও এর সাথে আধুনিক প্রযুক্তির সমন্বয় আমাদের প্রাত্যহিক জীবনকে ব্যাপকভাবে প্রভাবিত করছে।

বর্তমানে আমাদের বাসাবাড়ি সহ জীবনের সকল ক্ষেত্রে ইন্টারনেট ও ডিজিটাল ডিভাইসের প্রতি নির্ভরতা বেড়েছে। আসবাবপত্র ও গৃহস্থালি পণ্যের ক্ষেত্রেও তাই ‘স্মার্ট’ ডিভাইসগুলো এখন আধুনিক বাসাবাড়ির অবিচ্ছেদ্য অংশে পরিণত হয়েছে। এর মধ্যে অধিকাংশ বাসায় রান্নাঘরের অ্যাপ্লায়েন্সগুলোকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে দেখা হয়।

ভিন্ন ভিন্ন ধরণ ও কার্যকারীতা সম্পন্ন রান্নাঘরের অ্যাপ্লায়েন্স বা অনুষঙ্গের সমন্বয়ে গড়ে ওঠে আধুনিক গৃহীর স্মার্ট রান্নাঘর; যার মধ্যে অন্যতম হল রেফ্রিজারেটর। জীবনকে আরেকটু সহজ করে তোলার জন্য একটি স্মার্ট ও ইনটেলিজেন্ট রান্নাঘর গড়ে তুলতে আপনিও এমন নতুন প্রযুক্তির স্মার্ট রেফ্রিজারেটর নিয়ে আসতে পারেন আপনার রান্নাঘরে। তবে স্মার্ট রেফ্রিজারেটরের পূর্ণ সুবিধা পেতে আপনাকে মাথায় রাখতে হবে খুঁটিনাটি আরো কিছু বিষয়। চলুন, জেনে নেওয়া যাক একটি ‘ইনটেলিজেন্ট’ রান্নাঘর গড়ে তোলার জন্য প্রয়োজনীয় কিছু পরামর্শ।

প্রথমেই চাই স্মার্ট কানেক্টিভিটি
ইনটেলিজেন্ট রান্নাঘরের মূল বৈশিষ্ট্য হল এর স্মার্ট কানেক্টিভিটি। তাই সবার আগে রান্নাঘরের রেফ্রিজারেটরে উন্নত কানেক্টিভিটি ফিচার আছে কি না, তা নিশ্চিত করতে হবে। যেকোনো জায়গা থেকে নিয়ন্ত্রণ করা যায় এমন একটি স্মার্ট রেফ্রিজারেটর ছাড়া প্রস্তুতি সম্পন্ন হবে না। তাই রেফ্রিজারেটর কেনার ক্ষেত্রে এর মূল ফিচারে ‘থ্রিসি’, অর্থাৎ - কনভেনিয়েন্স, কানেক্টিভিটি ও কাস্টমাইজেশন – আছে কিনা, তা দেখে নিতে হবে।

রান্নাঘরের সজ্জার সাথে মিল রেখে নকশা

প্রযুক্তিগত উন্নয়নের ধারার সাথে তাল রেখে বাজারে নিয়মিতই আসছে ভিন্ন ভিন্ন আকার, আয়তন ও রঙের রেফ্রিজারেটর। যেহেতু রান্নাঘরের সৌন্দর্যের সাথে রেফ্রিজারেটর অনেকটাই জড়িত, তাই আপনার গৃহসজ্জার সাথে খাপ খায় এমন মডেল বাছাই করাও বেশ গুরুত্বপূর্ণ।

স্বাচ্ছন্দ্যের প্রশ্নে কোনো ছাড় নয়
রান্নাঘর স্মার্ট হোক কিংবা আনস্মার্ট – এতে যিনি দিনের একটি লম্বা সময় কাটাবেন, তার জন্য এর পরিবেশ হতে হবে পুরোপুরি স্বাচ্ছন্দ্যময় ও স্বস্তিদায়ক। একটি স্বাচ্ছন্দ্যদায়ক রান্নাঘর আপনার শরীর ও মনের ওপর থেকে চাপ কমাতে পারে; আর তাই অল্প জায়গায় পর্যাপ্ত কম্পার্টমেন্ট সুবিধা দেয় - এমন একটি রেফ্রিজারেটর বাছাই করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আকার-আকৃতি ছাড়াও নানা ধরণের আধুনিক ফিচার আপনার জীবনে যোগ করতে পারে বাড়তি আরাম, তাই স্মার্ট কিচেনের জন্য রেফ্রিজারেটর কেনার আগে ভালোভাবে দেখে নেওয়া উচিৎ এতে কি কি রিমোট ফিচার রয়েছে।

No description available.

ব্যবহারকারীদের চাহিদার সাথে সঙ্গতি রেখে বর্তমানে টাচলেস ফিটিংস, ইজি-টু-ক্লিন সারফেস ও অ্যাপ-কন্ট্রোলড রেফ্রিজারেটরের বিভিন্ন রকম মডেল নিয়ে আসছে বাজারের জনপ্রিয় ব্র্যান্ডগুলো। যেমন, সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও নজরকাড়া ডিজাইনের অনন্য সমন্বয়ে বিভিন্ন মডেলের রেফ্রিজারেটর বাজারে নিয়ে এসেছে দক্ষিণ কোরিয়ার খ্যাতনামা ব্র্যান্ড স্যামসাং। গাঢ় বা হালকা যে রঙই আপনার পছন্দ হোক না কেন, স্যামসাং নিয়ে এসেছে প্রত্যেক কালার প্যালেটের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ ও দৃষ্টিনন্দন মডেলের রেফ্রিজারেটর, যাতে রয়েছে অসংখ্য স্মার্ট ফিচারের সময়োপযোগী সংযোজন।

বাজারের অন্যান্য প্রসিদ্ধ ব্রান্ডগুলোও তাদের ডিজাইন ও ফিচারে নতুনত্ব আনার চেষ্টা করছে। রান্নাঘরকে ইনটেলিজেন্ট করে গড়ে তোলার মাধ্যমে হেঁসেলের দক্ষতা বহুগুণে বৃদ্ধি করতে পারেন আপনিও। সেই সাথে আধুনিক ডিজাইনের এই ডিভাইসগুলোর মাধ্যমে রান্নাঘরের উপযোগিতা ও নান্দনিকতাও বাড়িয়ে তুলতে পারেন নিমিষেই। রেফ্রিজারেটরের মতো নিত্য ব্যবহার্য একটি অনুসঙ্গকে আপগ্রেড করার মাধ্যমে আপনার স্মার্ট রান্নাঘরের স্বপ্ন এবারে সত্যি হবে সহজেই।

বিভি/এজেড

মন্তব্য করুন: