• NEWS PORTAL

  • বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

রঙিন ফুলে বাহারি সাজে সেজেছে ৩২ একর

ইভা আক্তার, গণ বিশ্ববিদ্যালয়

প্রকাশিত: ২১:৪৬, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

ফন্ট সাইজ
রঙিন ফুলে বাহারি সাজে সেজেছে ৩২ একর

প্রকৃতির লীলানিকেতনের এই দেশে পরপর ছয়টি ঋতু আসে। ভিন্ন ভিন্ন সময়ে দেখা যায় ভিন্ন সাজ। রুদ্র কঠোর সাজ গ্রীষ্মের। বর্ষায় এদেশ ক্রন্দসী নারীর মতো সজল শোকাতুরা শরতে শিউলিমালা পরে সাদা মেঘের ভেলায় চড়ে ঝলমল করে হেসে ওঠে সে। হেমন্তে পাকা ফসলের সম্ভারে প্রকৃতি হয় দেবী অন্নপূর্ণা, শীতে পরে সে বৈরাগ্যের বেশ। বৈরাগ্যের ধ্যান ভেঙে সুকঠোর সাধনা শেষ করে বসন্তকালে প্রকৃতি যেন রূপে-রঙে-রসে ঝলমল করে ওঠে। বসন্তকালকে বলা হয় ‘ঋতুরাজ’। এই বসন্তে রঙিন ফুলে বাহারি সাজে সেজেছে গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩২ একর।

ফাল্গুন-চৈত্র মিলে বসন্তকাল নবযৌবনা রূপ নিয়ে অজস্র ফুল, পাখি, পত্রপল্লব, বর্ণ গন্ধ, সুর ও ছন্দ একসাথে হাজির হয়

পলাশ ফুল না দেখলে যেন বসন্তের আবহই তৈরি হয় না।

গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৩২ একর জুড়ে রয়েছে বাহারি রঙের বিভিন্ন ফুলের গাছ

গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের শোভা বহুগুণ বাড়িয়ে দেয় বাহারি এসব ফুলের গাছ

ক্যাম্পাসজুড়ে দেখা মিলবে এরকম সাজানো গোছানো পুষ্পশোভিত রাস্তা

দূর আকাশের দিকে চোখ মেললেও দৃষ্টিতে আসবে নয়নাভিরাম কিছু ফুল

নাতিশীতোষ্ণ আবহাওয়ার সাথে দক্ষিণের মৃদুমন্দ বাতাস। শাখায় শাখায় নতুন ফুল আর ফুলের মৌ মৌ সুবাসে শরীর-মন জুড়িয়ে যায়। ঋতুরাজ বসন্ত ক্যাম্পাসের আনন্দ আরও বাড়িয়ে দেয়।

বিভি/এজেড

মন্তব্য করুন: