• বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

নেতা-কর্মী নিয়ে থানা ঘেরাও করলেন মুন্সীগঞ্জ পৌর মেয়র

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৮:৪৩, ১৯ জানুয়ারি ২০২২

ফন্ট সাইজ
নেতা-কর্মী নিয়ে থানা ঘেরাও করলেন মুন্সীগঞ্জ পৌর মেয়র

পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও শহর ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে ‘মিথ্যা অভিযোগ’ প্রত্যাহার ও হয়রানির প্রতিবাদে পৌর কাউন্সিলর, কর্মচারি ও কয়েক হাজার নেতা-কর্মী নিয়ে মুন্সীগঞ্জ সদর থানা ঘেরাও করেন পৌর মেয়র মো. ফয়সাল বিপ্লব। 

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) দুপুর ১২টার দিকে থানা ঘেরাও-এর খবর শুনে ছুটে আসেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মিনহাজ।

এ সময় নেতা-কর্মীরা থানায় ঢুকে বিভিন্ন প্রকার স্লোগান দিয়ে সাজ্জাত হোসেন সাগর-এর বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ প্রত্যাহারের দাবি করেন। ক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা বলেন, পুলিশ কর্মকর্তারা স্থানীয় সংসদ সদস্যের কথা শুনে প্যানেল মেয়রের বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়েছেন। এটা অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক কাজ। আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ জানাই। 

মেয়রের সংগে উপস্থিত ছিলেন আরেক প্যানেল মেয়র সোহেল রানা রানু, ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাত্তার মুন্সী, আওলাদ হোসেন, সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান নাজমুল হাসানসহ নেতা-কর্মীরা।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, পৌর মেয়র এসেছিলেন প্যানেল মেয়রের বিরুদ্ধে অভিযোগের বিষয়টি জানার জন্য, এসময় তাঁর সংগে অনেক কর্মী অনুসারীরা থানায় আসে। সৌজন্যমূলক আলাপ হয়েছে। থানা ঘেরাও করার মতো কোন ঘটনা ঘটেনি।

মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র ফয়সাল বিপ্লব জানান, নতুন বছরে সৌজন্য সাক্ষাৎ এবং আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে আলাপ হয়েছে। পাঁচ মিনিটর মতো থানায় ছিলাম। থানা ঘেরাও করার প্রশ্নই আসে না।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে অভিযোগের বাদী অহিদুজ্জামান বাবুল তার বাড়ি পাঁচঘড়িয়া কান্দি থেকে শহরে উদ্দেশে রওনা দিয়ে অ্যাডভোকেট সাজ্জাত বাড়ির সামনে আসলে পৌরসভার প্যানেল মেয়র সাজ্জাদ হোসেন সাগর ও তাঁর কয়েকজন নেতা-কর্মী বাবুল-এর পথরোধ করে তাঁকে মারধর করেন। পরে পুলিশ সেখান থেকে তাঁকে উদ্ধার করে জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।

বিভি/এসএইচএল/এসডি

মন্তব্য করুন: