• NEWS PORTAL

  • বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২ | ১৬ আষাঢ় ১৪২৯

ছাত্রলীগ-বিএনপি সংঘর্ষে রণক্ষেত্র খুলনা, বহু আটক ও হতাহত (ভিডিও)

খুলনা ব্যুরো

প্রকাশিত: ১৯:৩১, ২৬ মে ২০২২

আপডেট: ১৯:৩৩, ২৬ মে ২০২২

ফন্ট সাইজ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগ ও ছাত্রদল নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের উত্তাপ ছড়িয়ে পড়েছে খুলনায়ও। বৃহস্পতিবার বিকেলে দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিএনপি আয়োজিত সমাবেশ পন্ড হয়েছে। দফায় দফায় ছাত্রলীগ ও পুলিশ একাট্রা হয়ে বিএনপি-ছাত্রদলের ওপর হামলা চালায়। 

এ সময় পুলিশ বেশ কয়েক রাউন্ড টিয়ার সেল নিক্ষেপ এবং ছাত্রলীগ কর্মীরা ৫ শতাধিক চেয়ার ও মঞ্চ ভাংচুর করে এবং ব্যানার ছিড়ে ফেলে। রণক্ষেত্রে পরিণত হয় বিএনপি কার্যালয়ের সামনে কেডি ঘোষ রোড থেকে পিকসার প্যালেস মোড় পর্যন্ত। 

এদিকে, ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে বিএনপির নেতাকর্মীদের সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় অন্তত ৫০ জনকে আটক করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এখন পর্যন্ত অর্ধশতাধিক টেয়ারশেল ছুড়েছে পুলিশ। 

ঘটনাস্থলে পুলিশ অবস্থান করছেন। থেমে থেমে ইট পাটকেল নিক্ষেপ ও টিয়ার সেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটছে। এসময় পুলিশ বিএনপির বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীকে আটক করেছে।

জানা গেছে, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াসহ দেশের সিনিয়র সিটিজেন সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অসম্মানজনক মন্তব্য ও হত্যার হুমকির প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে খুলনা মহানগর ও জেলা বিএনপি। সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। বিকেল ৪টার দিকে সমাবেশ শুরু হয়। সমাবেশ শুরুর এক পর্যায়ে পুলিশ সেখানে চড়াও হয়। এ সময় বিএনপি নেতা-কর্মীরাও পুলিশকে ধাওয়া করে। এক পর্যায়ে পুলিশ দৌড়ে পিকসার প্যালেস মোড় পর্যন্ত চলে যায়। 

অপরদিকে, দলীয় কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত ছাত্রলীগ কর্মীরা এ খবর পেয়ে পিকসার প্যালেস মোড়ে এলে পুলিশ তাদের ডেকে নিয়ে একযোগে বিএনপি ও ছাত্রদল নেতা-কর্মীদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় ছাত্রলীগ কর্মীদের হাতে লাঠি এবং ইটপাটকেল নিয়ে বিএনপি নেতা-কর্মীদের ওপর হামলা চালাতে দেখা যায়। এ

সময় পুলিশ থেমে থেমে বেশ কয়েক রাউন্ড টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে। ঘটনাস্থল থেকে নগর বিএনপির সদস্য সচীব শফিকুল আলম তুহিন ও মহিলা নেত্রী রেহেনা বেগমসহ অর্ধশতাধিক নেতা-কর্মীকে আটকের খবর পাওয়া গেছে। তবে পুলিশ কয় রাউন্ড টিয়ারসেল নিক্ষেপ করেছে এবং কয়জনকে আটক করেছে- সে বিষয়ে কোন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেননি। 

বিভি/এপি/এজেড

মন্তব্য করুন: