• NEWS PORTAL

  • বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪

Inhouse Drama Promotion
Inhouse Drama Promotion

রাজমিস্ত্রির ধর্ষণে স্কুলছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা: অভিযুক্ত কারাগারে

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি 

প্রকাশিত: ১৭:৫০, ১ জুন ২০২৩

ফন্ট সাইজ
রাজমিস্ত্রির ধর্ষণে স্কুলছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা: অভিযুক্ত কারাগারে

প্রতীকী ছবি

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় ধর্ষণের শিকার এক স্কুল ছাত্রী (১৪) পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে।  এ ঘটনায় বুধবার (৩১ মে) রাতে স্কুল ছাত্রীর মা বাদী হয়ে টুঙ্গিপাড়া থানায় কেরামত ফরাজীকে (৪৫) আসামী করে একটি  মামলা দায়ের করেছেন। মামলা দায়েরের পর রাতেই টুঙ্গিপাড়া উপজেলার বাঁশুরিয়া গ্রাম থেকে অভিযুক্ত কেরামত ফরাজীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গত বছরের ২ ডিসেম্বর রাতে টুঙ্গিপাড়া উপজেলার বর্নি ইউনিয়নের বাঁশুরিয়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে। অভিযুক্ত কেরামত ফরাজী টুঙ্গিপাড়া উপজেলার বাঁশুড়িয়া গ্রামের মৃত বাদশা ফরাজির ছেলে। তিনি পেশায় রাজমিন্ত্রী।

মামলার বিবরণে জানাগেছে, প্রায় ১০ মাস আগে ওই স্কুল ছাত্রীর মায়ের নামে একটি সরকারি টয়লেট বরাদ্দ হয়। প্রতিবেশী কেরামত রাজমিস্ত্রি হিসেবে তাদের বাড়িতে ৩ দিন কাজ করে ওই টয়লেট নির্মাণ করে দেন। সেই সুবাদে মেয়ের পরিবারের সাথে তা সুসম্পর্ক সৃষ্টি হয়। পরে ওই ছাত্রী বিদ্যালয়ে যাতায়াত করার সময় মাঝেমধ্যে চকলেট আইসক্রিম কিনে দিত কেরামত। এক পর্যায়ে ওই ছাত্রীকে শারীরিক সম্পর্কের জন্য প্রস্তাব দেয়। ছাত্রী রাজি না হলে কেরামত তামাশা করেছে বলে তাকে জানায়। পরে গত ২ ডিসেম্বর রাত দেড়টায় প্রকৃতির ডাকে সারা দিয়ে ওই স্কুলছাত্রী বাইরে গেলে কেরামত জোরপূর্বক তাকে ধর্ষণ করে। এছাড়া ধর্ষণের বিষয়টি কাউকে বললে বাড়িঘর জ্বালিয়ে দেবে ও তার মাকে খুন করে ফেলবে বলে হুমকি দেয় কেরামত।

স্কুলছাত্রীর মা বলেন, গত ২২ মে আমারে মেয়ে বমি করে অসুস্থ হয়ে পড়লে আমার সন্দেহ হয়। তখন ডাক্তারি পরীক্ষা করালে  মেয়ে ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে নিশ্চিত হই। এরপর বুধবার রাতে টুঙ্গিপাড়া থানায় কেরামত ফরাজীকে আসামী করে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছি।

টুঙ্গিপাড়া থানার পরিদর্শক (ওসি) এসএম কামরুজ্জামান বলেন, টুঙ্গিপাড়া থানায় মামলা দায়ের করার পরে ওই রাতেই কেরামতের বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। বৃহস্পতিবার অভিযুক্ত কেরামতকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

বিভি/এমএস/এজেড

মন্তব্য করুন: