• ১৭ অক্টোবর ২০২১ | ২ কার্তিক ১৪২৮

BVNEWS24 || বিভিনিউজ২৪

আন্দোলনে নামছে ফারইস্টের চাকরিচ্যুতরা

প্রকাশিত: ১৭:৫৫, ১৩ অক্টোবর ২০২১

আপডেট: ১৮:২৯, ১৩ অক্টোবর ২০২১

ফন্ট সাইজ
আন্দোলনে নামছে ফারইস্টের চাকরিচ্যুতরা

বীমা কোম্পানি ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডের চাকরিচ্যুত চার হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী মানববন্ধন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আগামী শনিবার (১৬ অক্টোবর) সকাল ৯টায় তোপখানা রোডের ফারইস্ট টাউয়ারের সামনে কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হবে।

বুধবার (১৩ অক্টোবর) কোম্পানির সাবেক জোনাল ইনচার্জ ও চাকরিচ্যুত কর্মকর্তা-কর্মচারী ও গ্রাহক পরিষদের প্রধান আহ্বায়ক এস এম নুরুল্লাহ সিদ্দিকী স্বাক্ষরিত একটি চিঠির মাধ্যমে বিষয়টি জানা গেছে।

মানববন্ধনের অনুমতি চেয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার বরাবর লেখা চিঠিতে বলা হয়, কোম্পানির সাবেক চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম ও সাবেক এমডি এবং সিইও মো. হেমায়েত উল্লাহর আমাদের প্রায় চার হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নির্দয় ও বেআইনিভাবে চাকরিচ্যুত করেছে। এই বিষয়ে আমরা শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করতে চাই।

গত ১ সেপ্টেম্বর পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পর্ষদ ভেঙে দিয়ে নতুন ১০ জন স্বতন্ত্র পরিচালক নিয়োগ করে। নবনিযুক্ত পরিচালকরা ড. মুহাম্মদ রহমতউল্লাহকে ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্সুরেন্সের পর্ষদের নতুন চেয়ারম্যান নির্বাচিত করবে এবং গভর্ন্যান্স কোড ২০১৮ অনুযায়ী শুধু স্বতন্ত্র পরিচালকদের নিয়ে একটি নিরীক্ষা কমিটি গঠন করবে বলেও নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া একটি নমিনেশন এবং একটি রিমুনারেশন কমিটিও গঠন করতে বলা হয়েছে একই ধারায়।

এই পর্ষদ আগামী ৬ মাসের মধ্যে কোম্পানির শীর্ষ ব্যবস্থাপনা কাঠামো পুনর্গঠন করবে এবং প্রতিষ্ঠানের ক্যাশ ও সম্পদ ফিরিয়ে আনতে উদ্যোগ নেবে। সেইসংগে গত ১০ বছর যারা ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্সুরেন্সে আর্থিক অপরাধ এবং মানি লন্ডারিং করেছে তাদের বিরুদ্ধেও আইনানুগ ব্যবস্থা নেবে। তবে পুনর্গঠিত পরিচালনা পর্ষদকে নিশ্চিত করতে হবে যে কোম্পানির সংগে তাদের ব্যক্তিগত কোনো স্বার্থসংশ্লিষ্ট সম্পর্ক নেই এবং তারা বিমা আইন ২০১০, করপোরেট গভর্ন্যান্স কোড ২০১৮, এবং অন্যান্য সিকিউরিটিজ আইন তারা পরিপালন করবে।

গত ৪ অক্টোবর গ্রাহকের বীমা দাবি পূরণ না করাসহ একাধিক অভিযোগ উঠায় ফারইস্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের সাবেক চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম-এর বিরুদ্ধে তদন্ত করছে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)। আইডিআরএ-এর নির্বাহী পরিচালক এসএম শাকিল আখতার স্বাক্ষরিত একটি চিঠি ফারইস্ট ইসলামী লাইফের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার (সিইও) কাছে পাঠানো হয়েছে।

ফারইস্ট লাইফ ইন্স্যুরেন্সে ২০০৫-এ শেয়ারবাজারের তালিকাভুক্ত হয়। ২০১৯-এ কোম্পানিটির স্পন্সর ডিরেক্টরদের ৩০ দশমিক ৫৫ শতাংশ শেয়ার থাকলেও চলতি বছরের আগস্টে এসে মালিকদের শেয়ারের পরিমাণ কমে দাঁড়িয়েছে ৩০ দশমিক ৩২ শতাংশ। এছাড়া প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ একই বছরে ৪০ দশমিক ৬৪ শতাংশ হলেও বর্তমানে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪২ দশমিক ৫১ শতাংশ। 

বীমা কোম্পানিটিতে বিদেশি বিনিয়োগ ২০১৯-এ ৩ দশমিক ৫৯ শতাংশ হলেও বর্তমানে তা কমে দাঁড়িয়েছে শূন্য দশমিক ৭১ শতাংশে। কোম্পানিটিতে চলতি বছরে জুলাই মাস ২৭ দশমিক ৪২ শতাংশ থেকে আগস্টে কমে হয়েছে ২৬ দশমিক ২৩ শতাংশ। এক মাসেই কোম্পানিটিতে সাধারণ বিনিয়োগকারী কমেছে এক দশমিক ১৯ শতাংশ। অনুমোদিত মূলধন এক হাজার কোটি টাকা আর পেইড আপ ক্যাপিটাল ছিলো ৭৪ কোটি ৭৪ লাখ ৩০ হাজার টাকা।  

 

বিভি/এইচএস/রিসি 

মন্তব্য করুন: