• NEWS PORTAL

  • বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪

মালয়েশিয়ায় ই-পাসপোর্ট ও ভিসা সেন্টার উদ্বোধন করলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মো: আরিফুজ্জামান, মালয়েশিয়া থেকে

প্রকাশিত: ২২:২৩, ৫ জানুয়ারি ২০২৪

আপডেট: ২২:২৪, ৫ জানুয়ারি ২০২৪

ফন্ট সাইজ
মালয়েশিয়ায় ই-পাসপোর্ট ও ভিসা সেন্টার উদ্বোধন করলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

মালয়েশিয়ায় সহজে ও স্বল্প সময়ে ই-পাসপোর্ট ও ভিসা সেবা প্রদানের লক্ষ্যে বাংলাদেশ হাইকমিশন ই-পাসপোর্ট ও ভিসা আবেদন কেন্দ্রের ‘কল সেন্টার’-এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন, এম.পি। 

শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) কুয়ালালামপুরে সাউথগেট কমার্শিয়াল সেন্টারে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি উপস্থিত থেকে তিনি এই উদ্বোধন করেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পক্ষে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশের হাইকমিশনার মো. শামীম আহসান ফিতা কাটেন। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আউটসোর্সিং প্রতিষ্ঠান ‘এক্সপ্যাট সার্ভিসেস লিমিটেড’ (ESL) কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক গিয়াসউদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ হাইকমিশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ মালয়েশিয়ায় কর্মরত বিভিন্ন গণমাধ্যমকর্মীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

এদিকে, ‘জাতীয় প্রবাসী দিবস’ উপলক্ষে সেবা সপ্তাহ পালন করছে কুয়ালালামপুরস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন। এর শেষ দিনে এ কল সেন্টারের উদ্বোধন করা হয়। 

পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন বলেন, প্রবাসীদের সেবা ও কল্যাণ নিশ্চিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘প্রবাসী-বান্ধব নীতি’ অনুসরণ করছেন।  এ লক্ষ্যে, ৩০ ডিসেম্বরকে  ‘জাতীয় প্রবাসী দিবস’ ঘোষণা করেছে সরকার। 

তিনি আরো বলেন যে, মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ হাইকমিশন তাদের সীমিত জনবল দিয়ে মালয়েশিয়ায় বসবাসরত ১২ লক্ষাধিক প্রবাসীদের পাসপোর্টসহ অন্যান্য সেবা এবং বিদেশীদের ভিসা সেবা প্রদান করে আসছে। সাম্প্রতিক স্বাক্ষরিত চুক্তির আওতায় গত এক বছরে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক বাংলাদেশি মালয়েশিয়ায় এসেছেন। 

ফলশ্রুতিতে, পূর্বের যেকোন সময়ের তুলনায় হাইকমিশনের কাজের পরিধি বহুলাংশে বৃদ্ধি পেয়েছে। বিদ্যমান পরিস্থিতিতে ‘পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপ’ ধারণার আদলে সরকারের নির্দেশনায় পাসপোর্ট ও ভিসা সেবা সহজ ও দ্রুততর করতে আউটসোর্সিং কোম্পানি নিয়োগ দেয়া হয়েছে। পুরো প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতের পাশাপাশি প্রযুক্তির সর্বোচ্চ ব্যবহারের মাধ্যমে সেবাগ্রহীতাদের হয়রানি বন্ধের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। 

হাইকমিশনার মোঃ শামীম আহসান বলেন,  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রবাসী-বান্ধব নীতি ও ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নের ধারাবাহিকতায় ‘কল সেন্টার’ চালু হলো। শীঘ্রই  ই-পাসপোর্ট ও ভিসা প্রদান কার্যক্রম চালু হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।  প্রধানমন্ত্রীর প্রবাসী-বান্ধব নীতি বাস্তবায়নে দূতাবাস আন্তরিকভাবে কাজ করছে বলেও হাইকমিশনার উল্লেখ করেন। 

উল্লেখ্য, তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে প্রবাসী-বান্ধব নাগরিক সেবা নিশ্চিতে সম্প্রতি কুয়ালালামপুরস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্র ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে এক্সপ্যাট সার্ভিসেস লিমিটেড (ESL) কোম্পানির সাথে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে। ই-পাসপোর্ট ইস্যুর ক্ষেত্রে আবেদন ফরম পূরণ, স্ক্যান ও বায়োমেট্রিকসহ আবেদনের সকল কার্যক্রম ESL সম্পন্ন করবে। হাইকমিশন মালয়েশিয়ার পোস্টাল বিভাগ (Pos Malaysia) এর মাধ্যমে পাসপোর্ট বিতরণ নিশ্চিত করবে। 

কল সেন্টারের টেলিফোন নম্বর: 0392120267। সোম থেকে শুক্রবার সকাল ৯ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত পাসপোর্ট ও ভিসা বিষয়ে এ নম্বরে কল করে পরামর্শ নেয়া যাবে।

বিভি/এজেড

মন্তব্য করুন: