• NEWS PORTAL

মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

অটিস্টিক শিশুদের পরিবারের পাশে `সিডনী বাংলা উমেন্স নেটওয়ার্ক` 

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ০০:৫৭, ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

ফন্ট সাইজ
অটিস্টিক শিশুদের পরিবারের পাশে `সিডনী বাংলা উমেন্স নেটওয়ার্ক` 

প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশি স্পেশ্যাল শিশুদের মায়েদের নিয়ে নেটওয়ার্কিং এবং সাপোর্ট সিস্টেম শুরু করার উদ্যোগ নিয়েছে অস্ট্রেলিয়ায় উইমেন ওয়েলফেয়ার নিয়ে কাজ করা সংগঠন ‘সিডনী বাংলা উমেন্স নেটওয়ার্ক’। প্রবাস জীবনে বিভিন্ন রকম সুযোগ সুবিধার পাশাপাশি অস্ট্রেলিয়ায় নতুন ইমিগ্রেশন নিয়ে পাড়ি দেয়া অথবা পড়াশুনা করতে যাওয়া পরিবারের, আত্মীয়স্বজনবিহীন একাকীত্ব, ভাষাগত এবং চাকরির অনিশ্চয়তাসহ বিভিন্ন রকম চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে থাকে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশী কঠিন সময় পার করে চলতে হয় অটিস্টিক শিশু থাকা পরিবারের।

অটিজমের বিষয়ে উন্নত দেশগুলো অনেক সচেতন বলে তারা অন্যসব পরিবারের মতই নরমাল জীবনযাপন করলেও প্রবাসী বাংলাদেশিরা এখনও নিজের অথবা পরিবারের অন্য কোনো অটিজম শিশুকে সহজ ভাবে মেনে নিয়ে সামনে এগিয়ে যেতে মানসিক ভাবে প্রস্তুত নয়। তাছাড়া সময়মতো চিকিৎস্যা, থেরাপি এবং মানসিক সাপোর্ট না পাওয়ার কারণে ঝুকির মুখে থাকছে এমন স্পেশাল শিশুদের বাকিটা জীবন।

ডাঃ নাহিদ সায়মা ও অটিজম নিয়ে লেখালেখির মাধ্যমে বাংলাদেশি কমিউনিটির মায়েদেরকে দীর্ঘদিন ধরে মানসিক সাপোর্ট দিয়ে আসা নুদরাত লোহানি নবীর নেতৃত্বে সিডনী বাংলা উইমেন্স নেটওয়ার্ক আগামী ১৯ মার্চ রবিবার দুপুর ৪টা থেকে ব্ল্যাকটাউনের বাঙ্গারাবি রিসোর্স কমিউনিটি হাব এ অস্ট্রেলিয়ায় প্রথমবারের মতো বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের মায়েদের নিয়ে একটি ইভেন্ট করতে যাচ্ছেন।

উল্লেখ্য, ২০২২ সালে সিডনীর বেশ কয়েকজন বিভিন্ন ব্যাকগ্রাউন্ডের প্রফেশনাল প্রবাসী বাংলাদেশি সফল নারীদের সমন্বয়ে গঠন করা হয় ‘সিডনী বাংলা উমেন্স নেটওয়ার্ক’ নামে এই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনটি। বিশেষত সিডনীর বাংলাদেশি কমিউনিটির মহিলাদের প্রথম চাকরির অভিজ্ঞতা, সুযোগ সুবিধাসহ অর্থনৈতিক স্বাধীনতা, সমাজের বয়স্ক এবং অসুস্থ মানুষদের সাহায্য, স্পেশাল বাচ্চাদের মায়েদের নেটওয়ার্কিং এবং সাপোর্টসহ আরও বেশ কিছু উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে শুরু করা হয়েছে সংগঠনটি। সমাজকল্যাণমূলক এই সংগঠনটিতে সিডনীর প্রবাসী বাংলাদেশিদের বিভিন্ন পেশার আত্মনির্ভরশীল নারীরা একসঙ্গে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

সিডনী বাংলা উমেন্স নেটওয়ার্কের সভাপতি ডাঃ নাহিদ সায়মা বলেন, ‘শুধুমাত্র আর্লি ইন্টারভেনশন এবং মায়েদের কাছে প্রপার ইনফরমেশন পৌঁছানোর মাধ্যমেও আমরা আমাদের পরের প্রজন্মের অনেক বাচ্চাকেই উপহার দিতে পারি স্বাভাবিক একটা জীবন গঠন- একই সঙ্গে আমাদের এইসব মায়েদের মানসিক স্বাস্থ্যকে সুস্থ রাখতেও সাহায্য করতে পারি একজন আর একজনের পাশে থেকে।’

বিভি/এইচএস

মন্তব্য করুন: