• বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২ | ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

আমরা আর একটা জনি ডেপ দেখতে চাই না: প্রীতম আহমেদ

প্রকাশিত: ১৬:২০, ২৯ এপ্রিল ২০২২

ফন্ট সাইজ
আমরা আর একটা জনি ডেপ দেখতে চাই না: প্রীতম আহমেদ

২০১২ তে প্রেম ২০১৫ তে বিয়ে। বিয়ের এক বছর পর অ্যাম্বার হার্ড কোর্টে ডিভোর্স ফাইল করে। অভিযোগে বলা হয়, অ্যাম্বার হার্ড ডমেস্টিক ভায়োলেন্সের স্বীকার। তাদের ডিভোর্সের প্রায় সমসাময়িক সময়ে পৃথিবীজুড়ে শুরু হল “Me too” মুভমেন্ট। জনি ডেপ সেই আক্রমণের শিকার হলেন; সারাবিশ্বের দর্শকদের ঘৃনার শিকার হলেনআ্যালিস ইন ওয়ান্ডারল্যান্ড,পাইরেটস অফ দ্য ক্যারিবিয়ানএর মত সিনেমার নায়ক। সব পরিচালক প্রযোজকরা বয়কট করতে থাকলেন একজন সফল অভিনেতাকে। জনি ডেব এর নতুন পরিচয় হলো ড্রাগ অ্যাডিক্ট, 'ওয়াইফ বিটার'

এতোবছর পর আবিষ্কৃত হল, জনি ডেপ অ্যাবিউজার না, সে আসলে ভিক্টিম। বরং স্ত্রী আ্যাম্বার মেন্টাল ব্রেকডাউনের কারণে বিভিন্ন সময় তার গায়ে হাত তুলেছে, গালিগালাজ করেছে, তার মুখে জ্বলন্ত সিগারেটের ছ্যাঁকা দিয়েছে।মদের বোতল ছুঁড়ে মেরে তার আঙুল কেঁটেও ফেলেছে।

জনি ডেবের কাছে এখন আর তেমন কোন সিনেমা নেই। আর্থিক অনটন থেকে শুরু করে মানসিক ক্ষতি যা হবার গত কয়েক বছরে হয়ে গেছে। তার সোনালী সময় ফিরিয়ে দিতে পারবেনা এই মিডিয়া,আদালত বা কোন পরিচালক।

মাহফুজ আনাম জেমস বাংলা এবং হিন্দি রক ধারার গানের জন্য জগত বিখ্যাত। বাংলাগানের ইতিহাসে তার বিকল্প কেউ নেই। যেমন ছিলোনা বাচ্চু ভাই এর। পৃথিবীর অন্তত ৫০টি দেশে তিনি মিউজিক ট্যুর করেছেন করেন। এল এস ডি একটি ভয়াবহ মাদক। তার বিরুদ্ধে যখন তা গ্রহনের অভিযোগ এসেছে নিশ্চয়ই সমাজ বা প্রশাসনের সকলেই বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখবেন। এয়ারপোর্ট থেকে বিভিন্ন সামাজিক প্রতিষ্ঠান অনুষ্ঠানে তার দিকে বাড়তি নজর রাখা হবে। একজন নির্বিবাদী শিল্পীর দিকে মানুষ অপরাধীর দৃষ্টীতে তাকাবে। আনমনে হলেও জেমস ভাই নিজে তার সন্তানরা বছরের পর বছর বিব্রত বোধ করবেন।

বাংলাদেশের বেশিরভাগ মানুষ রক্ষনশীল। যেখানে শিল্পচর্চাটাকেই কেউ ঠিকঠাক ভালোভাবে নেন না; সেখানে এরকম লোকমুখে শোনা অভিযোগের ভয়াবহ প্রতিক্রিয়া হবে এটাই স্বাভাবিক। নিউজগুলো এর মধ্যেই কয়েক মিলিয়ন ভিউ ছাড়িয়ে গেছে। কেউ অভিযোগের সাথে একমত কেউ বিরোধিতা করছেন। ভরসার যায়গা একটাই। সাধারন শ্রোতারা নিজেদের বিবেক দিয়েই হয়তো পুরো ঘটনাটি মুল্যায়ন করবেন। আমরা আর একটা জনি ডেপ দেখতে চাই না।

গীতিকার, সুরকার, গায়ক ও অভিনেতা প্রীতম আহমেদ-এর ফেসবুক থেকে নেওয়া।

 

বিভি/এইচকে

মন্তব্য করুন: