• NEWS PORTAL

  • রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪

Inhouse Drama Promotion
Inhouse Drama Promotion

সেন্টমার্টিনের কাছে যুদ্ধজাহাজ দেশের সার্বভৌমত্বে আঘাত হানার চেষ্টা: জিএম কাদের

রংপুর ব্যুরো

প্রকাশিত: ১৮:৫৪, ১৫ জুন ২০২৪

আপডেট: ১৮:৫৫, ১৫ জুন ২০২৪

ফন্ট সাইজ
সেন্টমার্টিনের কাছে যুদ্ধজাহাজ দেশের সার্বভৌমত্বে আঘাত হানার চেষ্টা: জিএম কাদের

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের বলেছেন, মিয়ানমার সেন্টমার্টিনের কাছে যুদ্ধজাহাজ নিয়ে দেশের সার্বভৌমত্বের উপর আঘাত হানার চেষ্টা করছে। উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী ও বিমানবাহিনীর কোনো ভূমিকা নেই। শেষ পর্যন্ত তাদের চাপ সামলাতে না পারলে সরকার সরে এসে রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ার মত কাজ করে বিশ্বে মহানুভবতার পরিচয় দেবে। এরকম পাহাড় সমান ঘটনা নানাভাবে ধামাচাপা দিয়েছেন তারা। মানুষ চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। এটি সত্যিই দুঃখজনক।

 

শনিবার (১৫ জুন) বিকালে তিন দিনের সফরে রংপুরে এসে রংপুর সার্কিট হাউজে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। জিএম কাদের বলেন, এর আগে বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গাকে আমাদের দেশে ঠেলে দেওয়া হয়েছে। সরকার মানবতা দেখিয়ে সেই বোঝা ঘাড়ে নিয়েছে। বর্তমানে তাদের বাধা দেওয়ার চেষ্টা করা হোক। মিয়ানমার সেন্টমার্টিন যদি দখলে নিয়ে ফেলে আবার কোনো মহত্ত্বের কারণে তা ছেড়ে দেওয়া হবে কিনা আমরা জানি না। আমাদের সার্বভৌমত্ব রক্ষার করার দায়িত্ব। সংসদ চালু থাকলে এটি কেনো হচ্ছে আমি প্রশ্ন করতাম।

 

জিএম কাদের আরও বলেন, সরকার যে বাজেট করেছে তা দুর্বৃত্তায়ন সহায়ক বাজেট। বিভিন্ন দুর্বৃত্তায়নকে এ বাজেটে উৎসাহিত করা হয়েছে। দুষ্টের পালন ও শিষ্টের দমন করা হচ্ছে বিভিন্ন নীতিতে। সরকারের আশপাশের মানুষ ধনী থেকে অতি ধনী হচ্ছে আর সাধারণ মানুষ কষ্ট ভোগ করছে। এবারের বাজেটের মাধ্যমে বৈষম্যের দেশ তৈরি করা হচ্ছে।

 

তিনি বলেন, স্বাধীনতার পরে কোনো সময় অর্থনৈতিক সংকট হয়েছে বলে আমার জানা নেই। বর্তমানে যে সংকট তৈরি হয়েছে তা করেছে সরকার। তারা উচ্চাভিলাষী মেগা প্রকল্প করে, প্রকল্পের মেয়াদ বাড়িয়ে প্রকল্প ব্যয় বাড়িয়েছে। আমি বলবো অর্থের বিরাট অপচয় হয়েছে। তাই দেশে অর্থনৈতিক মন্দা দেখা দিয়েছে।

 

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে কর ছাড়ের সুফল পাচ্ছে ব্যবসায়ীরা, অপরদিকে করের বোঝা বইতে হচ্ছে জনগণকে। সরকার সংকুচিত অর্থ সরবরাহ মুদ্রানীতি গ্রহণ করার কথা বলেছে। কিন্তু দেশের বাজার নিয়ন্ত্রণ করে সিন্ডিকেট। তাই এই নীতি কোনো কাজে আসবে না।

 

বিরোধী দলীয় নেতা বলেন, সরকার বিদ্যুৎ ও গ্যাস আমদানি করছে। অথচ দেশে গ্যাসের বিশাল মজুদ রয়েছে। সেটি উত্তোলনের বিষয়ে সরকারের কোনো দৃষ্টি নেই। এতে করে উচ্চ মূল্যে জনগণকে বিদ্যুৎ-গ্যাস ব্যবহার করতে হচ্ছে। গ্যাস সংকট এবং উচ্চ মূল্য দিয়ে গ্যাস ব্যবহার করতে না পেরে অনেক ইন্ডাষ্ট্রি বন্ধ হয়ে গেছে। দেশে বেকারত্ব বাড়ছে।

 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান এসএম ইয়াসির আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক, জেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক আলাউদ্দিন মিয়াসহ অন্যরা।

বিভি/রিসি

মন্তব্য করুন:

Drama Branding Details R2
Drama Branding Details R2