• NEWS PORTAL

  • বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২

রাসূল (সা.) যে দশটি খাবার বেশি পছন্দ করতেন

প্রকাশিত: ২১:৪৩, ২১ নভেম্বর ২০২২

ফন্ট সাইজ
রাসূল (সা.) যে দশটি খাবার বেশি পছন্দ করতেন

সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মানব মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ছিলেন খুবই রুচিশীল মানুষ। তার পছন্দের কোনো বিষয়ে কেউ খুঁত ধরতে পারতেন না। খাবারের প্রতি ছিল দুর্বলতা। অনেক ধরণের খাবার রাসূল (সা.) খেতে পছন্দ করতেন। তার মধ্য থেকে দশটি রাসূল (সাঃ) এর প্রিয় খাবারের নাম আজ জেনে নিন।

বর্তমান বিজ্ঞান এটাই প্রমাণ করে যে। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম যে খাবারগুলো গ্রহণ করতেন সেগুলো ছিল সর্বোচ্চ স্বাস্থ্যসম্মত ও পুষ্টিকর খাবার। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম এর প্রিয় খাবারের মধ্যে দশটি প্রিয় খাবার-

> খেজুর: রাসূল (সাঃ) এর সবচেয়ে প্রিয় খাবার খেজুর। তিনি খেজুর সবচেয়ে বেশি পছন্দ করতেন, খেজুর এমন একটি ফল যা গাছে ধরার পর থেকে শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত খাওয়া যায়। নিয়মিত খেজুর খেলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয় ও চোখ ভালো থাকে।

> মধু ও কালোজিরা: রাসূল (সা.) বলেছেন, মধু ও কালোজিরা মৃত্যু ছাড়া সকল রোগের ঔষধ, অনেকে এর উপকারিতা পায় না, মধু ও কালোজিরার উপকারিতা পাওয়ার জন্য খাঁটি মধু এবং কালোজিরা খাওয়া লাগবে। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর হাদীস সব সময় সত্য , কখনো মিথ্যা হতে পারে না।

> দুধ:  রাসূল (সাঃ) এর প্রিয় খাবারের তালিকায় ছিল দুধ। রাসুল (সা.) গরুর দুধ অনেক পছন্দ করতেন। গরুর দুধ পান করলে মেধা শক্তি বৃদ্ধি পায়,ও স্মরণশক্তি বৃদ্ধি পায়,রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাই সালাম বলেছেন, তোমরা গরুর দুধ বেশি পান কর এবং গরুর গোশত কম খাও, বর্তমান বিজ্ঞান বলেছেন গরুর দুধের মধ্যে অনেক উপকারিতা আছে, আর গরুর লাল গোশত অনেক ক্ষতিকারক ।

> কদু বা লাউ: রাসূল (সাঃ) এর প্রিয় খাবারের অন্যতম ছিল কদু বা লাউ। সবজি জাতীয় খাবারের মধ্যে রাসূল (সা.) লাউ বেশি পছন্দ করতেন। একবার রাসূল (সা.) সাহাবায়ে কেরামদেরকে নিয়ে দাওয়াতে গিয়েছিলেন, দাওয়াতের মধ্যে লাউ দিয়ে গোশত রান্না করে দিয়েছেন, তখন রাসূল (সা.) গোশতগুলোকে একপাশে সরিয়ে লাউগুলো বেছে বেছে খেলেন। তখন সাহাবীরা বললেন, হে রাসূলুল্লাহ আপনি কি লাউ বেশি পছন্দ করেন, রাসূল (সা) বললেন হ্যাঁ আমি লাউ বেশি পছন্দ করি।

> তরমুজ এবং শসা:  রাসুল সাঃ এর প্রিয় খাবারের মধ্যে তরমুজ এবং শসা অন্যতম ছিল। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম শসা এবং তরমুজ একসাথে খেতেন। হযরত আয়েশা (রাঃ) হতে বর্ণিত তিনি বলেন। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম যখন তরমুজ খেতেন তার সাথে খেজুর মিস করে খেতেন। তরমুজ এবং শসা ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার। তরমুজ এবং শসা বেশি খেলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বারে।

> জয়তুন:  জয়তুন রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বেশি খেতেন, রাসুল সালাম বলেছেন তোমরা জয়তুন খাও এবং জয়তুনের তেল খাও। বাংলাদেশে জয়তুন হল জলপায় বা অলিভ অয়েল। বাংলাদেশের জয়তুনের সাথে আরবের জয়তুনের অনেক ব্যবধান আছে। আরবের জলপাই একটু ছোট হয় এবং স্বাদ অনেক বেশি হয়। আর বাংলাদেশের জলপাই একটু বড় হয় এবং অনেক টক হয়। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন জয়তুন গাছের মধ্যে আল্লাহ তাআলা অনেক পরিমাণ বরকত দিয়েছে। জয়তুন হচ্ছে ভিটামিন ই জয়তুনের মধ্যে স্বাস্থ্যগত অনেক উপকার আছে। চুল পড়া প্রতিরোধ করে।

> ত্বীন ফল: রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ত্বীন ফল অনেক পছন্দ করতেন, আল্লাহ তাআলা পবিত্র কোরআনের মাধ্যমে ত্বীন নামে একটি সূরা নাযিল করেছেন। ত্বীন বাংলাদেশে ডুমুর নামে পরিচিত। ডুমুর ফল গ্রাম অঞ্চলে বেশি পাওয়া যায়। তিন ফলের মধ্যে অনেক উপকার আছে। এক টুকরো ডুমুরের মধ্যে অনেক উপকার থাকে। ডুমুর নারী পুরুষের শরীরের মধ্যে শক্তি বৃদ্ধি করে। মরণব্যাধি ক্যান্সার থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

> কিসমিস: কিসমিস রাসূল (সা.) এর পছন্দের একটি খাবার। হযরত আব্বাস রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহু হতে বর্ণিত, তিনি বলেন রাসূল (সা.) এর জন্য প্রতিদিন কিসমিস ভিজিয়ে রাখা হতো, তিনি সকালে উঠে কিসমিস এবং কিসমিসের পানি উভয়টি পান করতেন। তাজা আঙ্গুর ফলকে শুকিয়ে কিসমিস বানানো হয়, কিসমিস এর মধ্যে অনেক উপকারিতা আছে।

> ডালিম: ডালিমের মধ্যে অনেক উপকার আছে। রাসূল (সাঃ) এর প্রিয় খাবার এর মধ্যে ডালিম একটি অন্যতম খাবার। এ ফলটি পৃথিবীর প্রত্যেকটি দেশের মোটামুটি পাওয়া যায়। একেক দেশে একেক নামে ডাকা হয় ফলটিকে। এই ফলটিকে কোন কোন দেশের ডালিম কোন দেশে আনার আবার কোন দেশের বেদানা ও বলা হয়।

> আঙ্গুর: আঙ্গুর রাসুল (সা.) এর প্রিয় ফলগুলোর একটি। এ ফলটি আকারে ছোট হলেও এর ফল এর মধ্যে অনেক উপকারিতা আছে। আঙ্গুরের মধ্যে ভিটামিন এ বি সি উপাদানগুলো আছে, আঙ্গুর ফলের ভিটামিন সি ত্বক ঠিক রাখে, বয়সের ছাপ কমাম।

বিভি/এজেড

মন্তব্য করুন: