• মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১ | ১৬ অগ্রাহায়ণ ১৪২৮

BVNEWS24 || বিভিনিউজ২৪

যেভাবে ১২০০ যুবকের সংগে প্রতারণা করেছেন এই তরুণী

প্রকাশিত: ১৮:২৭, ১৭ নভেম্বর ২০২১

আপডেট: ২২:০১, ১৭ নভেম্বর ২০২১

ফন্ট সাইজ
যেভাবে ১২০০ যুবকের সংগে প্রতারণা করেছেন এই তরুণী

চাকরি প্রত্যাশী বেকার যুবকদের টার্গেট করে একটি কোম্পানি চালু করেন সালমা আক্তার মুন্নি (২১) নামের এ তরুণী। সোস্যাল মিডিয়া ফেসবুকে ওই কোম্পানিতে সিকিউরটি গার্ড, কেয়ারটেকার এবং বডিগার্ড হিসেবে আকর্ষণীয় বেতনে লোক নিয়োগ দেওয়ার বিজ্ঞাপন দিতেন তিনি। 

ওই বিজ্ঞাপনে প্রলুব্ধ হয়ে চাকরি নিতে আসা ১ হাজার ২৩৯ জন যুবকের সংগে প্রায় ১২ লাখ টাকার প্রতারণা করেছেন এই তরুণী। শেষ পর্যন্ত ভুক্তভোগীদের অভিযোগের প্রমাণ পেয়ে তরুণীকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‍্যাব)।

বুধবার (১৭ নভেম্বর) বিকেলে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক ব্রিফিংয়ে এই তথ্য জানান র‍্যাব-১ এর অধিনায়ক আব্দুল্যাহ আল মোমেন।

আরও পড়ুন:
বিয়ে ঠিক হওয়ার পর ফাঁকা বাড়িতে নিয়ে হবু স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ
তৃতীয় বিয়ে করলেন পূজা, শেষ দুইবারের পাত্র একই

মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) দিবাগত রাতে র‌্যাব-১ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ঢাকার খিলক্ষেত থানাধীন নিকুঞ্জ-০২, রোড নং-১৩, বাসা নং-১২ এর ৫ম তলায় অবস্থিত 'NH Security Service Ltd' এর অফিসে অভিযান পরিচালনা করে এমএলএম প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্য সালমা আক্তার মুন্নি (২১) কে গ্রেফতার করে। এসময় তার হেফাজত থেকে একটি সিপিইউ, দু’টি মোবাইল ফোন, ভুয়া নিয়োগপত্র, ২০টি ভিজিটিং কার্ড এবং আট পাতার চাকরি বিজ্ঞাপনের স্ক্রিনশট উদ্ধার করে র‍্যাব।

র‍্যাব-১ এর অধিনায়ক আব্দুল্যাহ আল মোমেন বলেন, গ্রেফতার সালমা একটি সংঘবদ্ধ এমএলএম প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্য। প্রতারক চক্রটি ডিজিটাল প্লাটফর্মে তাদের প্রতিষ্ঠানে চাকরি দেওয়ার কথা বলে বিভিন্ন পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে থাকে। 'Bd jobs Bd' হলো তাদের ফেসবুক পেজ। এই চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে দেশের সাধারণ মানুষের বেকারত্বের সুযোগ নিয়ে তাদেরকে চাকরি দেওয়ার নামে ভুয়া নিয়োগপত্র প্রদান করে প্রতারণার মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিলো।

তিনি আরও বলেন, এমএলএম কোম্পানিটির নাম 'NH Security Service Ltd' এবং রাজধানীর খিলক্ষেত এলাকায় তাদের অফিস। তাদের অফিস থেকে চাকরি প্রার্থীদের মোবাইলে ফোন দিয়ে একটি নির্দিষ্ট তারিখে অফিসে এসে ইন্টারভিউ দেওয়ার জন্য বলা হয়। পরবর্তীতে চাকরি প্রার্থীরা ইন্টারভিউয়ের জন্যঅফিসে আসার পর তাদের কাছ থেকে ফরম পূরণ বাবদ ৫০০ টাকা নেওয়া হয়। তারপর তাদের ইন্টারভিউ নিয়ে তাদের চাকরি নিশ্চিত হয়েছে মর্মে জানিয়ে দেওয়া হয়। তাদের চাকরিতে যোগদানের আগে পদ অনুসারে ৫-৬ হাজার টাকা জামানত বাবদ আদায় করা হতো এবং তাদের জানানো হতো পদ অনুসারে তাদের মাসিক ১০-১৫ হাজার টাকা বেতন প্রদান করা হবে। পরে ওই সিকিউরিটি অফিসে যোগদান করলে তাদের নিয়োগপত্রে উল্লেখ করা হতো প্রতি মাসে অন্তত ১০ জন নতুন চাকুরী প্রার্থী সংগ্রহ করতে হবে এবং নতুন চাকুরী প্রার্থী সংগ্রহের ভিত্তিতে তাদের বেতন প্রদান করা হবে মর্মে আশ্বাস প্রদান করা হতো। পরবর্তীতে ভিকটিমরা তাদের কোম্পানিটির প্রতারণার বিষয়ে বুঝতে পেরে জামানতের টাকা ফেরত চাইলে বিভিন্ন টালবাহানা চলতো এবং টাকা ফেরত দিতে অস্বীকৃতি জানানো হতো।

আরও পড়ুন:
ফেসবুক-ইউটিউবে অশ্লীলতার ছড়াছড়িঃ আটক কমেডিয়ান চিকন আলী

বাবাকে অন্য নারীর সংগে দেখে ফেলাই কাল হলো ফাতিমা’র

র‍্যাব-১ এর অধিনায়ক বলেন, গ্রেফতার অভিযুক্ত বিগত ৬ মাসে প্রায় ১২৩৯ জন চাকুরী প্রার্থীকে তাদের কোম্পানির নিয়োগ ফরম পূরণ করতে তাদের কাছ থেকে ১১ লাখ ২৬ হাজার ২০০ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। সিকিউরিটির গার্ড নিয়োগের নামে কোম্পানি চললেও গত ৬ মাসে তারা কোন সিকিউরিটি গার্ড নিয়োগ দিয়েছে বলে কোন তথ্য প্রমাণ দেখাতে পারেনি।

তিনি বলেন, অভিযুক্ত সালমা আক্তার মুন্নি’র পৈত্রিক বওিড় মাদারীপুর। অতি সাধারণ ঘরের একজন স্বল্প আয়ের কর্মজীবী মেয়ে হওয়া স্বত্ত্বেও তিনি চরম উচ্চাভিলাসী। তিনি এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন বলে জানা যায়। তবে এর সত্যতা নিশ্চিত করা যায়নি। তাকে জিজ্ঞাসাবাদে আরও জানা যায়, জনৈক হাবিবুর রহমান-এর সংগে মিলে প্রতারণার উদ্দেশ্যে ২০২০ সালের শুরু থেকে 'NH Security Service Ltd' নামক ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান। চাকরি প্রত্যাশী দরিদ্র ছাত্র-ছাত্রী ও সাধারণ জনগণকে টার্গেট করে প্রতারণা করতেন তারা। 

বিভি/এসএইচ/এসডি

মন্তব্য করুন: