• বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২ | ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

শাবিপ্রবি’র শিক্ষার্থীদের অনশন চলছে (ভিডিও)

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১০:২৬, ২০ জানুয়ারি ২০২২

আপডেট: ১৬:২০, ২০ জানুয়ারি ২০২২

ফন্ট সাইজ

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ-এর অপসারণ চেয়ে শিক্ষার্থীদের আমরণ অনশন চলছে। এরই মধ্যে পেরিয়ে গেছে ১৯ ঘণ্টা। কনকনে শীত ও প্রতিকূল পরিবেশ উপেক্ষা করে শিক্ষার্থীরা এ কঠোর কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছেন।

বুধবার ( ১৯ জানুয়ারি) দুপুর ২টা ৫০ মিনিটে স্বেচ্ছায় ২৪ জন শিক্ষার্থী উপাচার্যের বাসভবনের সামনের সড়কে আমরণ অনশন শুরু করেন। এদের মধ্যে ৯ জন ছাত্রী ও ১৫ জন ছাত্র। 

অনশনে বসার আগে শিক্ষার্থীরা বেলা ১১টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন।

এর আগে মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) রাত সাড়ে দশটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনের সামনে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা সংবাদ সম্মেলন করেন। সম্মেলনে বুধবার (১৯ জানুয়ারি)  দুপুর ১২টার মধ্যে উপাচার্যকে স্বেচ্ছায় পদত্যাগের আল্টিমেটাম দিয়ে এই আমরণ অনশন কর্মসূচি ঘোষণা করেন শিক্ষার্থীরা। 

বুধবার সোয়া ১টার দিকে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী ইয়াছির সরকার ঘোষণা দিয়ে বলেন, আমরা যারা আমরণ অনশনে বসছি তারা সজ্ঞানে এবং স্বেচ্ছায় এই কর্মসূচি পালন করতে যাচ্ছি। আমাদের এই আন্দোলনের একটিই বক্তব্য, একটিই দাবি, সেটি হলো উপাচার্যের পদত্যাগ। এই উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে যদি কোনো শিক্ষার্থীকে মৃত্যুবরণ করতেই হয় তাহলে আমরা মরতেও রাজি আছি।

এদিকে, বুধবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. তুলসী কুমার দাস, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভাগীয় প্রধানসহ শিক্ষকদের একটি প্রতিনিধি দল শিক্ষার্থীদের অনশন ভাঙানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু শিক্ষার্থীরা দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়ে তাঁদের প্রত্যাখ্যান করে কথা বলার সুযোগ দেননি।

পরে দু’টি পৃথক বিবৃতির মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ডিন উদ্বেগ প্রকাশ করেন এবং প্রশাসনকে সুষ্ঠু পরিবেশ ফিরিয়ে আনার আহ্বান জানান। এছাড়া গতকাল উপাচার্য অনলাইনে শিক্ষকদের সংগে এবং পরে নিজ বাসভবনে কর্মকর্তাদের সংগে দফায় দফায় আলোচনা করেন।

উল্লেখ্য, অসদাচরণের অভিযোগ এনে বেগম সিরাজুন্নেসা চৌধুরী ছাত্রী হলের প্রভোস্ট কমিটির পদত্যাগসহ তিন দফা দাবিতে গত বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) রাত নয়টা থেকে আন্দোলন কর্মসূচি চালিয়ে আসছিলেন শাবিপ্রবি’র শিক্ষার্থীরা। এই নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সংগে বৈঠক হলেও দাবি পূরণ না হওয়ায় আন্দোলন অব্যাহত রেখেছিলেন তাঁরা। রবিবার উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করা হলে এই আনন্দোলন বিরাট রুপ লাভ করে। 

বিভি/এসএস/রিসি 

মন্তব্য করুন: