• মঙ্গলবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

BVNEWS24 || বিভিনিউজ২৪

অবশেষে জামিন পেলেন আরিয়ান খান

প্রকাশিত: ১৭:৪১, ২৮ অক্টোবর ২০২১

আপডেট: ১৭:৫৬, ২৮ অক্টোবর ২০২১

ফন্ট সাইজ
অবশেষে জামিন পেলেন আরিয়ান খান

ফাইল ছবি।

তিন সপ্তাহ পর অবশেষে জামিন পেয়েছেন শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান। বৃহস্পতিবার বম্বে হাইকোর্টে তার জামিন মঞ্জুর হয়। গত ৩ অক্টোবর থেকে তিনি কারাবন্দী। খবর এনডিটিভি'র।

একাধিকবার বিশেষ আদালতে জামিন আবেদন খারিজ হওয়ায় শেষ পর্যন্ত হাইকোর্টের শরণাপন্ন হন আরিয়ানের আইনজীবী। বুধবারও আরিয়ানের জামিনের আবেদন খারিজ করে দেন মুম্বাইয়ের এক বিশেষ আদালত। নিম্ন আদালতের সেই নির্দেশের বিরুদ্ধে মুম্বাই হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়ে শেষ পর্যন্ত জামিন পেয়েছেন ২৩ বছর বয়সী আরিয়ান।

এর আগে মঙ্গলবার আরিয়ান-এর জামিনের শুনানি স্থগিত রাখেন বিচারপতি নিতিন সাম্বর। বুধবার দুপুরে শুরু হয় শুনানি। এদিন আরিয়ান খান, আরবাজ মার্চেন্ট ও মুনমুন ধামেচার আইনজীবীর পক্ষের কথা শোনার পরই তিন অভিযুক্তের জামিনের শুনানি ফের স্থগিত রাখেন বিচারক। বৃহস্পতিবার ফের মামলার শুনানি হয়। শুনানি শেষে আরিয়ানসহ তিন আসামিকেই জামিনের আদেন দেশ আদালত।

গত ২ অক্টোবর একটি প্রমোদতরী থেকে মাদক সংক্রান্ত অভিযোগ আটক করা হয় আরিয়ানকে। দীর্ঘ ১৬ ঘণ্টা জেরার পর পরদিন তাকে গ্রেফতার দেখায় দেশটির মাদক নিয়ন্ত্রণ সংস্থা-এনসিবি। দুই দফায় জামিন খারিজের পর এনসিবি হেফাজত থেকে গত ৮ অক্টোবর জেল হেফাজতের নির্দেশ দেয় ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট। তারপর থেকেই আর্থার রোড জেলে বন্দি আরিয়ান খান। ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের পর মুম্বাই সেশন কোর্টেও খারিজ হয়ে যায় আরিয়ান খানের জামিন-এর আবেদন। এরপরই বম্বে হাইকোর্টে আরিয়ান-এর জামিনের আবেদন করেন তাঁর আইনজীবী অমিত দেশাই। এদিন আদালতে অবশ্য সতীশ মানশিন্ডে বা অমিত দেশাই নয়, আরিয়ানের হয়ে সাওয়াল জবাব করলেন প্রাক্তন অ্যাটর্নি জেনারেল মুকুল রোহাতগি। অন্যদিকে এনসিবির হয়ে সওয়াল জবাব করলেন এএসজি অনিল সিং। বিচারপতি নিতিন সাম্বরের সিঙ্গেল বেঞ্চের কাছে দুই পক্ষই নিজেদের সমর্থনে বক্তব্য পেশ করেছেন।

এদিকে আরিয়ানদের মাদক-মামলার তদন্তকারী আধিকারিক সমীর ওয়াংখেড়ের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। মামলার অন্যতম সাক্ষী প্রভাকর সইল তাঁর বিরুদ্ধে ঘুষের অভিযোগ তোলার পর ঘটনা নতুন মোড় নেয়। সমীরের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে তদন্তও শুরু হয়েছে। সম্প্রতি আর এক সাক্ষী কিরণ গোসাভিকে আটক করেছে পুলিশ। পুনে পুলিশের পক্ষ থেকে এই খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। এই কিরণ গোসাভিই এনসিবি অফিসে আরিয়ান-এর সংগে সেলফি তুলেছিলেন।

এখন প্রশ্ন উঠছে, তাহলে কি তদন্তকারী আধিকারিকের ভূমিকা ধোঁয়াশায় বলেই আরিয়ানকে জামিন দিল আদালত? আদালত অবশ্য বলেছে, শুক্রবার তাকে জামিন দেওয়ার কারণ সবিস্তারে জানানো হবে।

বিভি/এমএস

মন্তব্য করুন: