• NEWS PORTAL

মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

অ্যান্টার্কটিকা অভিযাত্রা

মহুয়া রউফ

প্রকাশিত: ১৩:৫১, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

আপডেট: ১৩:৫৫, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

ফন্ট সাইজ
অ্যান্টার্কটিকা অভিযাত্রা

আজ আমাদের অ্যান্টার্কটিকা অভিযাত্রার সপ্তম দিন। এটি সর্বমোট বারো দিনের একটি অভিযাত্রা। যে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন প্রতিষ্ঠানটি এ অভিযাত্রা পরিচালনা করছে তার নাম পসিডন এক্সপেডিশনস্ (Poseidon Expeditions)। এ অভিযাত্রায় যে জাহাজ তারা ব্যবহার করছে তার নাম এম/ভি সি স্পিরিট। মোট একশো চৌদ্দ জন অভিযাত্রীর জন্য ক্রু এবং অন্যান্য কর্মকর্তা আছে প্রায় আশি জন।

 

 প্রতিদিন দুটি করে কার্যক্রম থেকে। এ কার্যক্রমকে বলা হয় অপারেশনস। আজ আমাদের সকালের অপারেশন ছিলো হাইকিং। অর্থাৎ অ্যান্টার্কটিক পেনিনসুলার একটি পর্বতে আরোহণ। উদ্দেশ্য পর্বতের উপর থেকে অ্যান্টার্কটিকার পেনিনসোলার ভিউ দেখা। ছবির এ অংশটিকে বলা হয় অর্নে হার্বুর (Orne Harbour)। আমাদের আরোহণের জন্য নির্ধারিত পাহাড়টি এখানেই। বড়ো জাহাজ এখানে পৌঁছাতে পারেনা কারণ আশেপাশে অনেক আইসবার্গ থাকে। বড়ো জাহাজ থেকে ছোটো ছোটো নৌকায় করে অভিযাত্রীদের নিয়ে যাওয়া হয় নির্ধারিত স্থানে। এই নৌকাগুলোকে বলা হয় জোডিয়াক (Zodiac)। 

অ্যান্টার্কটিক পেনিনসুলার একটি পর্বতে আরোহণ

কীভাবে বুঝবেন আপনি অ্যান্টার্কটিকায় পৌঁছে গেছেন? আরে বাবা কোনোও রাস্তাঘাট তো নাই। কোথাও নাম ধাম লেখা নাই। বিলবোর্ড নাই। আমি একটি পদ্ধতি আবিষ্কার করেছি। প্রাকৃতিক পদ্ধতি। 
এর নাম হলো 'পেঙ্গুইন পু '। অর্থাৎ পেঙ্গুইনের পায়খানা। যখন নাকে পেঙ্গুইনের মলের ঝাঁঝালো গন্ধ আসবে তখন আপনি বুঝতে পারবেন আপনি আপনার গন্তব্যে পৌঁছে গেছেন।

মন্তব্য করুন: