• NEWS PORTAL

  • বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪

Inhouse Drama Promotion
Inhouse Drama Promotion

রাহুল গান্ধীর কারাদণ্ড বিষয়ে যা বললেন বোন প্রিয়াঙ্কা 

প্রকাশিত: ২৩:১১, ২৩ মার্চ ২০২৩

ফন্ট সাইজ
রাহুল গান্ধীর কারাদণ্ড বিষয়ে যা বললেন বোন প্রিয়াঙ্কা 

ছবি: প্রিয়াঙ্কা গান্ধী (ফাইল ফটো)

ভারতের গুজরাটের সুরাটের একটি আদালত কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীকে দুই বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন। বিজেপির এক নেতার মানহানি মামলায় বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) এ কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে। আদেশ শোনার পর এক টুইটার পোস্টে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন রাহুল গান্ধী ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। 

কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী টুইটারে লিখেছেন- আমার ধর্ম সত্য ও অহিংসার উপর প্রতিষ্ঠিত। সত্যই আমার ঈশ্বর, অহিংস উপায়েই তাকে পেতে হয়। 

ওই রায়ের পর রাহুল গান্ধীর বোন ও কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধীসহ বিরোধী নেতারা তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। প্রিয়াঙ্কা গান্ধী এক টুইটার পোস্টে লিখেছেন- ‘ভয় দেখিয়ে, শাস্তি দিয়ে, বৈষম্যমূলক আচরণ করে রাহুল গান্ধীজির কণ্ঠকে রোধ করার চেষ্টা করা হচ্ছে। আমার ভাই কখনো ভয় পায়নি। সে কখনো ভীতু হবে না। সে সত্য কথা বলে বেঁচে আছে এবং সত্য কথা বলতেই থাকবে। সত্যের শক্তি ও কোটি কোটি মানুষের ভালোবাসা তার সঙ্গে আছে।’ 

২০১৯ সালে লোকসভা নির্বাচনের আগে কর্ণাটকের কোলারে একটি সমাবেশে বক্তৃতা করার সময় রাহুল গান্ধী অভিযোগ করে বলেছিলেন, ‘সব চোরের নাম কিভাবে মোদি হয়!’ তার এ মন্তব্যের পর বিজেপির বিধায়ক ও গুজরাটের সাবেক মন্ত্রী পূর্ণেশ মোদি রাহুলের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেন। 

মামলায় চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এইচ এইচ ভার্মার আদালত গত সপ্তাহে উভয়পক্ষের চূড়ান্ত যুক্তি শুনানি শেষ করেন এবং রায় ঘোষণার জন্য ২৩ মার্চ দিন ধার্য করেন। বৃহস্পতিবার চূড়ান্ত রায়ে রাহুল গান্ধীকে দুই বছরের কারাদণ্ড দেন আদালত। তবে তাকে ৩০ দিনের জামিন দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে রায়ের বিরুদ্ধে রাহুলকে উচ্চ আদালতে আপিল করতে হবে। তা না হলে নিয়মানুযায়ী তাকে গ্রেফতার করা হতে পারে। 

এ মামলায় আদালতে হাজিরা দেওয়ার জন্য বৃহস্পতিবারই গুজরাটের সুরাটে পৌঁছেছেন রাহুল গান্ধী। এরপর কংগ্রেসের শীর্ষ নেতারা তাকে স্বাগত জানান। 

দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালও বিরোধী নেতাদের ‘শেষ’ করার ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলেছেন বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে। তিনি বলেছেন, ‘রাহুল গান্ধীর সঙ্গে আমার মতভেদ আছে, কিন্তু তাকে মানহানির মামলায় ফাঁসানো ঠিক নয়। আমি আদালতকে সম্মান করি, কিন্তু এই রায়ের সঙ্গে একমত নই।’ 

কংগ্রেস প্রধান মালিকার্জুন খার্গে বলেছেন, ‘আদালতের এ রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করা হবে। আমরা আইন ও বিচার ব্যবস্থায় বিশ্বাস করি এবং আইন অনুযায়ী আমরা এ রায়ের বিরুদ্ধে লড়াই করবো।’ সূত্র: এনডিটিভি
 

বিভি/এমআর

মন্তব্য করুন: