• NEWS PORTAL

শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

ভক্তদের সুখবর দিলেন তাসরিফ খান

প্রকাশিত: ১৯:১৫, ২৩ মার্চ ২০২৩

ফন্ট সাইজ
ভক্তদের সুখবর দিলেন তাসরিফ খান

ভক্তদের সুখবর দিলেন তাসরিফ খান

নেটদুনিয়ায় ও বিনোদন জগতে এখন জনপ্রিয় মুখ তাসরিফ খান। সম্প্রতি ফেসিয়াল প্যারালাইসিসে আক্রান্ত হয়ে তার মুখের এক পাশ বাঁকা হয়ে যায়। এ নিয়ে বেশ চিন্তিত তার পরিবার এবং কখনও কখনও ভেঙে পড়তেন তিনি নিজেও। সাভারের পক্ষাঘাতগ্রস্তদের পুনর্বাসন কেন্দ্র বা সেন্টার ফর দ্য রিহ্যাবিলিটেশন অফ দ্য প্যারালাইজ্‌ড (সিআরপি) হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন তাসরিফ। ১৮ দিন পর তাসরিফের মুখে হাসি ফুটলো। শিগগিরই কাজে ফিরবেন বলে তার উদ্বিগ্ন ভক্তদের উদ্দেশে সুখবর দেন তিনি।

সংবাদমাধ্যমকে তাসরিফ বলেন, ‘আল্লাহর অশেষ রহমতে এখন অনেকটাই সুস্থ। বলা যায়, ৭০ ভাগ সেরে উঠেছি। আমার আত্মবিশ্বাস ছিল দ্রুত সেরে উঠব। সেটাই হচ্ছে। চিকিৎসকেরাও আশাবাদী, আমি পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠব। তারা জানিয়েছেন, আর ১০–১৫ দিন লাগবে পুরো সুস্থ হয়ে উঠতে। এখন আর চিন্তা করছি না। সেরা চিকিৎসা পেয়েছি। এটাই আমার জন্য স্বস্তির খবর।’

এখনই গান নিয়ে না ফিরলেও আপাতত সামাজিক কর্ম নিয়ে ফিরেছেন এই গায়ক। তিনি দীর্ঘদিন ধরেই চেষ্টা করেন নিয়মিত অসুস্থসহ নানা ধরনের অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে। কখনও ফান্ড গঠন করে, কখনও নিজেই আর্থিক সহায়তা দিয়ে পাশে থাকেন। 

তাসরিফ খুশি মনে বলেন, ‘এখনই গান করব না। আগে সুস্থ হয়ে উঠি। তবে আমার সোশ্যাল অ্যাকটিভিটি এখন চলছে।’

তিনি আরও জানালেন, আগের মতো আর মুখ বাঁকা নেই। এখন হাসতেও পারছেন। সব ঠিক থাকলেও আগের মতো পুরো উদ্যমে ফিরবেন না তাসরিফ। তার আগে নিয়মিত চিকিৎসা পর্ব শেষ করতে হবে।

তাসরিফ নিয়মিত মিরপুর থেকে সাভারের গিয়ে থেরাপি নিচ্ছেন। সপ্তাহে বৃহস্পতি–শুক্রবার বাদে বাকি পাঁচ দিন চিকিৎসা নিতে ছুটতে হয়। এর আগে ৫ মার্চের দিকে রাতে খেয়ে কুলি করতে গিয়ে তরুণ জনপ্রিয় গায়ক তাসরিফ খান বুঝতে পারেন, তিনি ঠিকমতো কুলি করতে পারছেন না। তার মুখ থেকে পানি অন্য দিক দিয়ে বের হয়ে যাচ্ছে। মুখের এক পাশে কিছুটা বাঁকা, সোজা হচ্ছিল না। ভয় পেয়ে যান তিনি। বাসায়ই বিশ্রাম নিচ্ছিলেন। পরে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হলে জানতে পারেন তিনি ‘ফেসিয়াল প্যারালাইসিস’-এ আক্রান্ত।

‘কুঁড়েঘর’ নামে তাসরিফ খানদের একটি ব্যান্ড আছে। ২০১৭ সাল থেকে ব্যান্ডটি নিয়ে যাত্রা শুরু করেন। ‘আমি মানে তুমি’, ‘ব্যাচেলর’, ‘ময়না রে’সহ ৯০টির বেশি মৌলিক গান রয়েছে। তিনি দেশ ও দেশের বাইরে কনসার্ট নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন। রোজার আগপর্যন্ত নিয়মিত কনসার্ট থাকলেও অসুস্থতার কারণে সব বাতিল করেন। সুস্থ হলে ঈদের পরে তার গান নিয়ে ফেরা কথা রয়েছে। গত বছরের জুনে সিলেটের বন্যাদুর্গত বিপর্যস্ত মানুষদের জন্য আর্থিক সহায়তা চেয়ে ফেসবুকে লাইভ করেন তরুণ গায়ক তাসরিফ খান। সেই লাইভ মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায়। সে সময় কোটি টাকার বেশি ফান্ড সংগ্রহ করে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে আলোচনায় এসেছিলেন। সেই অভিজ্ঞতা নিয়ে ‘বাইশের বন্যা’ নামের একটি বই লিখেছেন তিনি। বইটি নিয়েও তাঁর ভক্তদের মধ্য সাড়া পড়ে

বিভি/টিটি

মন্তব্য করুন:

সর্বাধিক পঠিত