• NEWS PORTAL

  • শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪

ইউটিউব ট্রেন্ডিং-এর শীর্ষে ‘পথে হলো পরিচয়’

প্রকাশিত: ১৯:৪৭, ২৪ মে ২০২৩

আপডেট: ২০:০৮, ২৪ মে ২০২৩

ফন্ট সাইজ

‘‘বহুদিন টিভি নাটক দেখা হয় না। ‘বিশেষ এক কারণে’ অনেক দর্শক-পাঠকের ক্রমাগত মেসেজে একপ্রকার অতিষ্ঠ হয়েই 'পথে হলো পরিচয়' নামের নাটকটা দেখতে বসলাম। ভেবেছিলাম, জাস্ট ওই 'বিশেষ কারণ'টুকু দেখেই রেখে দেব। কিন্তু তা আর পারলাম কই? এই প্রায় ভোররাত লাগিয়ে দেখা শেষ করলাম। সেই চিরাচরিত প্রেমের গল্পই। কিন্তু কী স্নিগ্ধ সুন্দর নির্মাণ! একইসঙ্গে টানটানও। চারপাশের নানান অস্থিরতায়, দহনে অস্থির হয়ে থাকা সময়ে যেন একপশলা শান্ত শীতল বৃষ্টির অনুভব ছড়িয়ে দেয়া মায়াময় গল্প।’’ এমন এক স্ট্যাটাস নিজের ফেসবুকে শেয়ার করেছেন হালের জনপ্রিয় লেখক সাদাত হোসাইন। 

গত রোজার ঈদে যতগুলো নাটক দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছিল তার মধ্যে বর্তমানে শীর্ষে অবস্থান করছে জিয়াউল ফারুক অপূর্ব ও তানজিম সাইয়ারা তটিনী অভিনীত নাটক 'পথে হলো পরিচয়'। আর নাটকটি নির্মাণ করেছেন জাকারিয়া সৌখিন। নাটকটি সামাজিক মাধ্যম ইউটিউবের ট্রেন্ডিং-এ এক নম্বরে আছে।  

‘পথে হলো পরিচয়’ নাটকটি চিরাচরিত প্রেমের গল্প হলেও এতে রয়েছে ভিন্নতার ছোঁয়া। নাটকটির কেন্দ্রীয় চরিত্র মাহিন ও তুলির (আসল নাম নিতু) পরিচয় রেলস্টেশনে। যেখানে তারা দুজনেই নির্ধারিত ট্রেনে উঠতে ব্যর্থ হয়ে ঢাকায় ফিরে আসার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। স্টেশন মাস্টারের পরামর্শে তুলি মাহিনের সঙ্গে ঢাকায় ফিরে আসতে সম্মত হলেও সে তার নিজের নিরাপত্তার স্বার্থে নিজের ঠিকানা ভুল দেয় মাহিনকে। তারপর ঢাকায় ফেরার পথে তাদের সঙ্গে ঘটতে থাকে একের পর এক চাঞ্চল্যকর ঘটনা, যা এই প্রেমের গল্পকে দিয়েছে টানটান উত্তেজনা। আর এ কারণেই নাটকের প্লট পেয়েছে ভিন্ন মাত্রা।

নাটকটির কেন্দ্রীয় দুটি চরিত্রে অপূর্ব ও  তটিনী তাদের অসাধারণ অভিনয় দক্ষতায় দর্শকদের হৃদয় ছুঁয়ে গেছেন। আর পরিচালক জাকারিয়া সৌখিন এই নাটকে একটি সাধারণ প্রেমের  গল্পকে কাব্যিক দৃশ্যরূপ দিতে সমর্থ হয়েছেন। 

নাটকটির নির্মাতা জাকারিয়া সৌখিন বাংলাভিশনকে বলেন, ‘আমি নাটক বানাই নিজের ভালো লাগা থেকে, মনের সন্তুষ্টির জন্য। আর সেই কাজ যদি দর্শকপ্রিয়তা পায় তখন সন্তুষ্টি আরও বেড়ে যায়। এ নাটকের অভিনয় শিল্পী থেকে টেকনিশিয়ান যারা কাজ করেছেন, প্রত্যেকেই ভীষণ আন্তরিক ছিলেন। তাই হয়তো নাটকটি দর্শকদের মনে এতো সাড়া ফেলতে পেরেছে।’

নাটকটির মন্তব্যের ঘরে ফাহিম চৌধুরী নামে এক দর্শক লেখেন, ‘এক ঢাকা শহরে, এক বিল্ডিংয়ের ভিতরে নাটক না করে সারা বাংলাদেশে বিভিন্ন লোকেশনে নাটক করলে ভালো হয়, যেমন তার প্রমাণ 'পথে হলো পরিচয়'। আমাদের দেশটা অনেক সুন্দর,নাটকের মাধ্যমে সবাইকে দেশটাকে দেখার সুযোগ করে দেন। নাটকটি অসম্ভব সুন্দর।’

আদিব আব্দুল্লাহ নামে এক দর্শক লেখেন, ‘দেখতে দেখতে পুরো ১ঘন্টা কেটে গেলো কিন্তু একমুহূর্তের জন্য টেরই পাইনি, সত্যি বলতে এই নাটকের প্রত্যেকটি মুহূর্তই ছিলো অজানাতে হারিয়ে যাওয়ার মতো!’

বিভি/জোহা

মন্তব্য করুন: