• NEWS PORTAL

  • শনিবার, ২২ জুন ২০২৪

Inhouse Drama Promotion
Inhouse Drama Promotion

যারা হলেন বাংলাদেশের নারী শার্ক!

প্রকাশিত: ১৭:২২, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

আপডেট: ১৭:৩৭, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

ফন্ট সাইজ
যারা হলেন বাংলাদেশের নারী শার্ক!

বিশ্ববিখ্যাত শো 'শার্ক ট্যাংক' অবশেষে আসছে বাংলাদেশে। বাংলাদেশের ওটিটি প্ল্যাটফর্ম বঙ্গ এই বিজনেস রিয়ালিটি শো-টি বাংলাদেশে আনতে সনি পিকচার্স এন্টারটেইনমেন্টের সাথে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে।

দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর, গত সপ্তাহে বাংলাদেশি শার্কদের প্যানেলের একটি অংশ উন্মোচন করা হয়েছে যার মধ্যে ছিলেন সামি আহমেদ, নাজিম ফারহান চৌধুরী, গোলাম মুর্শেদ, কাজী মাহবুব হাসান, ফাহিম মাশরুর ও সামানজার খান।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) নারী শার্কদের নাম ঘোষণা করেছে শার্ক ট্যাংক বাংলাদেশ। নারী শার্করা হলেন: ট্রেড গ্রুপ অব কোম্পানিজের চেয়ারপারসন ফাতিন হক, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস পিএলসি পরিচালক আনিকা চৌধুরী, গালা মেকওভার সেলুন-এর প্রতিষ্ঠাতা নাভিন আহমেদ ও এনচান্টেড ইভেন্টস এবং প্রিন্টসের সিইও ও প্রতিষ্ঠাতা সাওসান খান মঈন।

অসাধারণ এই নারী উদ্যোক্তারা তাদের অতুলনীয় দৃষ্টি, দক্ষতা এবং সাফল্যের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বাংলাদেশে উদ্যোক্তার আখ্যানকে নতুনভাবে সংজ্ঞায়িত করতে চলেছেন। তাই আপনিও প্রস্তুত হোন শার্ক ট্যাংক বাংলাদেশে তাদের অসাধারণ যাত্রায় অনুপ্রাণিত ও মুগ্ধ হতে।

প্রায় ২০০০টিরও বেশি কোম্পানি যাচাই বাছাই করার পরে অবশেষে বহুল প্রত্যাশিত এই শো-টির শুটিং ১২ই ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে। সনি, আর্চ ডাইসন ও কেভিন হাইল্যান্ডের প্রযোজকরা, যারা বিশ্বে শো-টির সংস্করণগুলো তৈরি ও তত্ত্বাবধান করতে সহায়তা করেছেন, তারা শার্কদের পরিচয় উন্মোচন ও শুটিংয়ের প্রথম কয়েক দিন তত্ত্বাবধান করতে ঢাকায় উপস্থিত থাকবেন।

শার্ক ট্যাংক বাংলাদেশ সিজন-১ শো-টি সম্প্রচারিত হবে দীপ্ত টিভি ও বঙ্গ-তে।

শার্ক ট্যাংক কী

‘শার্ক ট্যাংক’ সম্ভাবনাময় উদ্যোক্তাদের ব্যবসায়িক ধারণা বিনিয়োগকারীদের একটি প্যানেলের কাছে উপস্থাপন করতে দেয়, যারা ‘শার্ক’ নামে পরিচিত। তারা বিজনেসটিকে পছন্দ করলে উদ্যোক্তাদের সঙ্গে একটি চুক্তির মাধ্যমে নগদ অর্থ প্রদান করেন। কোনো উদ্যোক্তার কাছে যদি একটি নতুন পণ্যের প্রোটোটাইপ অথবা একটি বিদ্যমান পণ্য বা পরিষেবা, অথবা ব্যবসা বৃদ্ধির পরিকল্পনা থাকে, তাহলে তাদের ধারণায় বিনিয়োগ করার জন্য পাঁচজন ‘শার্ক’কে রাজি করাতে হবে।

২০০১ সালে জাপানে নিপ্পন টিভিতে ‘মানি টাইগারস’ হিসেবে চালু হওয়ার পর থেকে, এই ফরম্যাটটি বিশ্বব্যাপী একটি অভূতপূর্ব সাফল্যে পরিণত হয় এবং প্রতিটি মহাদেশে কখনো ‘ড্রাগন’স ডেন’, কখনো ‘লায়নস ডেন’সহ বিভিন্ন নামে অনুষ্ঠিত হয়।


 

বিভি/টিটি

মন্তব্য করুন: