• NEWS PORTAL

  • বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

খাগড়াছড়িতে নির্বিচারে জমির টপসয়েল তুলছে প্রভাবশালী চক্র

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০৯:৪৩, ২৪ জানুয়ারি ২০২৩

ফন্ট সাইজ
খাগড়াছড়িতে নির্বিচারে জমির টপসয়েল তুলছে প্রভাবশালী চক্র

খাগড়াছড়িতে প্রতিদিন নির্বিচারে কৃষি জমির টপসয়েল কেটে নিচ্ছে এক শ্রেণীর প্রভাবশালী লোক। বেশিরভাগ কৃষি জমির মাটি যাচ্ছে ইট ভাটায়। কৃষি জমির টপসয়েল কেটে নেওয়ায় কমছে আবাদী জমির পরিমাণ। খাদ্য উৎপাদন বাড়াতে কৃষি জমির টপসয়েল কাটা বন্ধের দাবি জানিয়েছে কৃষিবিদেরা।

ভূ-প্রাকৃতিক গঠনের কারণে খাগড়াছড়িতে কৃষি জমির পরিমাণ কম। অথচ যন্ত্র দিয়ে প্রতিদিন কৃষি জমির টপসয়েল বা উর্বর মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছে প্রভাবশালী মহল। ফলে বিদ্যমান আবাদী জমির উৎপাদন ক্ষমতা কমে যাচ্ছে।

খাগড়াছড়ি পাহাড়ি কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের মূখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো. আলতাফ হোসেন বলেন, ‘টপসয়েল কাটায় অপূরণীয় ক্ষতি হচ্ছে।  প্রাকৃতিকভাবে কৃষি জমিতে প্রতি ইঞ্চি টপসয়েল তৈরি হতে সময় লাগে কয়েকশ বছর। টপসয়েল কাটা বন্ধে সচেতনতা দরকার। এমনিতেই পার্বত্য এলাকায় টপসয়েল এর পরিমাণ কম। ইটভাটাসহ বিভিন্ন কাজে কৃষি জমির টপসয়েল ব্যবহার করার কারণে কৃষিতে অপূরণীয় ক্ষতি হচ্ছে। কৃষি জমি বিবর্ণ হয়ে যাচ্ছে।’

খাগড়াছড়িতে ৪৫টি ইটের ভাটায় ইট তৈরিতে কৃষি জমির টপসয়েল ব্যবহার করা হয়। খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক মো.সহিদুজ্জামান জানান, জেলার মাটিরাঙা ও রামগড়ে টপসয়েল কাটার দায়ে একাধিক ভাটা মালিককে জরিমানা করেছে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত। অবৈধ ইটভাটায় কৃষি জমির মাটি ব্যবহার বন্ধে অভিযান জোরদার করা হবে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন। তারা বলছে, ‘টপসয়েল কাটা বন্ধে ইতোমধ্যে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। অভিযোগ পাওয়া গেলে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

বিভি/এনএ

মন্তব্য করুন: