• NEWS PORTAL

  • বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২

নিজেকে এখন ইডেনের ছাত্রী পরিচয় দিতেই লজ্জা লাগে! (ভিডিও)

প্রকাশিত: ২৩:৩০, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

আপডেট: ২৩:৩১, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

ফন্ট সাইজ
নিজেকে এখন ইডেনের ছাত্রী পরিচয় দিতেই লজ্জা লাগে! (ভিডিও)

সম্প্রতি রাজধানীর ইডেন মহিলা কলেজে ছাত্রলীগ কাণ্ডে সমালোচনার ঝড় বইছে সারা দেশে। কলেজ ক্যাম্পাসে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি অবস্থানে প্রকাশ পেয়েছে ছাত্রলীগ নেত্রীদের নানা অপকর্মের কথা। এমনকি ছাত্রলীগের পদধারী নেত্রীরাই ফাঁস করেছে কলেজের সুন্দরী শিক্ষার্থীদের নিয়ে কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভার অনৈতিক কর্মকান্ডের বিষয়গুলো। 

এরই মধ্যে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে ইডেনে ছাত্রলীগ কান্ডে সাধারণ শিক্ষার্থীদের অনৈতিক কাজে বাধ্য করার বিষয়টি। যা নিয়ে ব্যাপকভাবে বিব্রত ইডেনের শিক্ষার্থীরা। তারা বলছেন, ‘এখন নাকি ইডেনে পড়াশুনা করেছেন, এই বিষয়টি বলতেই লজ্জা পেতে হয় তাদের’ ঠিক এমনটিই বলছিলেন ইডেন কলেজ ছাত্র দলের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক সৈয়দা সুমাইয়া। 

এ বিষয়ে সৈয়দা সুমাইয়া বাংলাভিশনকে বলেন, ‘আমরা ইডেনের শিক্ষার্থী এখন বাইরে গিয়ে বলতেই লজ্জা পাই। ইডেনে ছাত্রলীগ কাণ্ডের পর থেকেই বিভিন্ন আত্মীয় স্বজন আমাদের দিকে আড় চোখ তাকানো শুরু করেছে, আবার অনেকেই ফোন দিয়ে জিজ্ঞেস করছে বিষয়গুলো নিয়ে।’

হয়তো গুটি কয়েক শিক্ষার্থীর কারণেই পুরো ক্যাম্পাসটাকেই কথা শুনতে হচ্ছে উল্লেখ করে এই শিক্ষার্থী বলেন, ‘আমরা যারা ইডেনের পরিবার বা আমাদের যারা অভিভাবক আছে তারা সবাই কিন্তু লজ্জার সম্মুখীন হচ্ছি, অনেকেই আমাদের প্রশ্ন করছেন , তাহলে পরিবেশটা কি এরকমেরই। আমরাও কি এমনই? বাজে ধরণের ইঙ্গিত আমাদের দিকে আসছে’

 

আক্ষেপের সাথে একই কথা বলছেন, ইডেন কলেজে শাখা সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের সাধারণ সম্পাদক শাহীনূর সুমিও। তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়ে শুধু ছাত্রলীগই নয়, আমরা যারা ইডেনে পড়ছি বা ইডেনের হলে আছি আমাদের সবাইকেই বিব্রত করেছে। যদিও ইডেনে প্রীতিলতার মতো শিক্ষার্থীদের গৌরবমাখা ইতিহাস রয়েছে। ছাত্রলীগের এমন নোংরা কর্মকান্ডে সেসব গৌরব ম্লান হয়ে এখন এমন পরিস্থিতির যাচ্ছে যে আমাদের পরিচয় দিতে বিব্রত হই।

তবে, তিনি অবশ্য এসব কান্ডে শুধু ছাত্রলীগকেই দুষছেন না, একই সাথে ইডেন প্রশাসনের পাহাড়সম ব্যর্থতার বিষয়টিও তুলে ধরেন। সেই সাথে ইডেন কলেজে কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ব্যবস্থারও দাবী জানান সুমি।

বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও সমালোচনার ঝড় বইছে।  যমুনা টিভির সিনিয়র রিপোর্টার মনিরুল ইসলাম তার ফেসবুক ওয়ালে ব্যাপক ক্ষেভ প্রকাশ করেছেন। তিনি লিখেছেন, "মেয়েদের ধরে ধরে রুমে আটকে নগ্ন-অশ্লীল ছবি তুলে নেত্রীরা ব্ল্যাকমেল করে’ এরচেয়ে গুরুতর অভিযোগ আর কী হতে পারে? এখনো ওই নেত্রীরা গ্রেফতার হয়নি? 

No description available.

এর চেয়ে আর কতোবড় অপরাধ করলে আইনের আওতায় আনা যায়? পুরুষ দূরে থাক কোনো নারীকে দেখছি না প্রতিবাদ করতে? সব চিন্তিত ইরানের মানবাধিকার নিয়ে। সব পড়ে আছে মরিয়ম মান্নানকে নিয়ে। আফসোস !

তবে, এতসব ঘটনার পরেও ছাত্রলীগ বা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোন ব্যবস্থাই নেয়া হয়নি অভিযুক্ত সেই রিভা (সভাপতি, ইডেন কলেজ ছাত্রলীগ) এবং রাজিয়া (সাধারণ সম্পাদক, ইডেন কলেজ ছাত্রলীগ) বিরুদ্ধে। উল্টো বহিস্কার করা হয়েছে আন্দোলনকারী ১৬ ছাত্রলীগ নেত্রীকে। 

তবে, দুই পক্ষের সংঘর্ষ সৃষ্টির প্রেক্ষাপটে ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের সাংগঠনিক কার্যক্রম পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত স্থগিত ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। 

উল্লেখ্য, গত শনিবার(২৪ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে ইডেন কলেজ ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষ বাধে। মুখোমুখী অবস্থান, পাল্টাপাল্টি ধাওয়ায় শনিবার রাত থেকে শুরু করে রোববার দিনভর উত্তাপ ছিল ক্যাম্পাসে। সন্ধ্যায় সংঘর্ষও হয়েছে ক্যাম্পাসে। এ ঘটনা নিয়ে সব মহলে চলছে সমালোচনা।

বিভি/এজেড

মন্তব্য করুন: